জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন (দাগসূচি) খতিয়ান তথ্য - Jomir Khotiyan Number

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি: সবার কাছে প্রয়োজনীয় একটি সম্পদ হচ্ছে জমি। আপনার জমি নেই বা অনেক জমি রয়েছে তবুও জমি ক্রয় করার আগ্রহ আপনার আছে। তাই আজকের ইনফোতে আলোচনা হবে  জমির মালিকানা বের করার উপায়: খতিয়ান বের করার নিয়ম ও অনলাইনে জমির মালিকানা যাচাই।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

বাংলাদেশ ভূমি মন্ত্রণালয় ভূমি সেবায় ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। ফলে যে কেউ এখন অনলাইনে জমির মালিকানা যাচাই করা কিংবা মোবাইলেই জমির খতিয়ান বের করে নিতে পারবে।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

আজকে আমরা জানবো কিভাবে অনলাইনের মাধ্যমে জমির দাগ নম্বর থেকে আপনি জমির খতিয়ান নাম্বার টি খুব সহজে বের করতে। পারবেজমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

আরো পড়ুন:


►► জীবনে ব্যর্থতার কারণ

►► কন্টেন্ট রাইটিং করে আয়

►► মোবাইল ফোনের দাম ২০২১ 

►► অনলাইন আয়ের সাইট 2021

►► অনলাইনে গল্প লিখে টাকা আয়

►► কিভাবে ফেসবুক পেজ খুলতে হয় 

►► সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস শাখা 

►► সার্টিফিকেট হারিয়ে গেলে করনীয় ?

►► বিবেকানন্দের শিক্ষামূলক বাণী 

►► অনলাইনে ইনকাম করার উপায়

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন

অনেকেই জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি দেখতে চাই।  কিন্তু এটি  কিভাবে অনলাইনে চেক করতে হয় তা জানেন না।  অনেক  সময় দেখা যায় যে আমাদের কাছে জমির দাগ নম্বর থাকে কিন্তু হতে নাম্বারটি জানা থাকে না।  

কিন্তু আপনি চাইলে জমি দাগ থেকে বাংলাদেশ ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে খতিয়ান চেক করতে পারবেন।  আপনি যদি জমির  দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি পেতে চান তাহলে নিচের দেওয়া লিংকে ভিজিট করতে হবে।  সেখানে পরবর্তী নির্দেশনাবলী অনুসরণ করে আপনি এক নম্বরের মাধ্যমে খতিয়ান নম্বর খুঁজে পাবেন।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচিজমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

এই লিঙ্কে ভিজিট করুনঃ acland.gov.bd

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি
অবশ্যই পড়ুন: নিজের নামে রিংটোন কিভাবে তৈরি করুন ৩০ সেকেন্ডেই? - How to Make Own Name Ringtone

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan

জমির খতিয়ান বা পর্চা কি?

খতিয়ান বা পর্চা একই জিনিস। জমির মালিকানা প্রমাণের সরকারি যে দলিল তাকে খতিয়ান বলে। বিভিন্ন এলাকায় এটাকে বিভিন্ন নামে ডাকা হয়।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


আইনিভাবে খতিয়ানের পরিচয়- আইনিভাবে বলতে গেলে বলা যায় সরকারীভাবে জমি জরিপ করার সময় জরিপের বিভিন্ন ধাপ অতিক্রম করে  চূড়ান্তভাবে বাংলাদেশ ফরম নং ৫৪৬২ (সংশোধিত) তে ভুমির মালিকানা/ দাগের বর্ণনাসহ যে নথিচিত্র প্রকাশ করা হয় তাকে খতিয়ান বলে।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচিজমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


খতিয়ানে কি কি উল্লেখ থাকে?জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির খতিয়ানে মালিকানা তথ্য সহ বিভিন্ন বিষয় উল্লেক থাকে। যেমন-


প্রজা বা জমি দখলদারের নাম, ঠিকানা, পিতার নাম ও প্রজা বা দখলদার কোন শ্রেণীভুক্ত।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

প্রজা বা দখলদার কর্তক জমির অবস্থান, পরিমান ও সীমানা।

জমির মালিকের নাম, পিতার নাম ও ঠিকানা।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

এস্টেটের মালিকের নাম, পিতার নাম ও ঠিকানা।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

খতিয়ান তৈরি করার সময় খাজনার পরিমান ও ২৮,২৯,৩০ বিধি অনুযায়ী নির্ধারিত খাজনা। গরু চরণভুমি, বনভুমি ও মৎস খামারের জন্য ধারণকৃত অর্থ।

খাজনার যে পদ্ধতিতে নির্ধারিত করা হয়েছে তার বিবরণ।

২৬ ধারা মোতাবেক নির্ধারিত এবং ন্যায়সঙ্গত খাজনা।

খাজনা বৃদ্ধিক্রম থাকলে তার বিবরণ।

ইজারাকৃত জমির ক্ষেত্রে জমির মালিকের অধিকার ও কর্তব্য।

প্রজাস্বত্ব বিশেষ শর্ত ও তার পরিনতি।

পথ চলার অধিকার ও জমি সংলগ্ন অন্যান্য অধিকার।

নিজস্ব জমি হলে তার বিবরণ।

খতিয়ান নং, মৌজা নং, জেএল নং, দাগ নং, বাট্রা নং, এরিয়া নং ইত্যাদি উল্লেখ থাকে।

পড়ুন: সোনার দাম আজ কত ?

 

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan

খতিয়ান বের করার নিয়ম বা কিভাবে জমির খতিয়ান উঠাবেন?

খতিয়ান উঠানো বা বর্তমানে খতিয়ান বের করার দুটি পদ্ধতি রয়েছে। একটি হচ্ছে ডিজিটাল পদ্ধতি অপরটি হচ্ছে মেনুয়াল পদ্ধতি।

 

ডিজিটাল পদ্ধতিতে আপনি দু প্রকার খতিয়ান উঠাতে পারবেন। খতিয়ানের অনলাইন কপি এবং ডাক যোগে খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি পাওয়ার জন্য অনলাইনে আবেদন।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

 

জমির খতিয়ান উঠানোর মেনুয়াল পদ্ধতি হচ্ছে- খতিয়ান নাম্বার বা জমির দাগ নাম্বার নিয়ে সেটেলমেন্ট অফিসে যোগাযোগ করে খতিয়ান তোলা।

 

সেটেলমেন্ট থেকে খতিয়ান উঠাতে ১০০ (একশত) টাকা খরচ হয়। আর অনলাইনে খতিয়ান উঠাতে ৫০ টাকা খরচ লাগবে।

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

অবশ্যই পড়ুন: ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য কিসের প্রয়োজন - Earn Money By Freelancing

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan

মাঠ পর্চা কি বা মাঠ পর্চা কাকে বলে?

জমি জরিপ করার সময় জমির মালিকদেরকে একটি খসড়া খতিয়ান দেওয়া হয় তাকে মাঠ পর্চা বলে। এটাতে কোন প্রকার ভুল থাকলে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সহজেই সংশোধন করে নেওয়া যায়।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


সুতরাং বলাযায় চুড়ান্ত খতিয়ান প্রকাশের আগে জমির মালিকরা যে খসড়া খতিয়ান ব্যবহার করে তাকে মাঠ পর্চা বলে।

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

খতিয়ানের প্রকারভেদ

আমাদের দেশে এ যাবৎ তিনটি জরিপ হয়েছে। জরিপ অনুযায়ী জমির খতিয়ান বিভিন্ন হয়ে থাকে। যেমন-

  1. সিএস খতিয়ান

  2. এসএ খতিয়ান

  3. আরএস খতিয়ান

  4. বিএস খতিয়ান/সিটি জরিপ

এখানে উল্লেখ্য যে, বিএস খতিয়ান/সিটি জরিপ আর এস খতিয়ানের অন্তভুক্ত সেই হিসাবে খতিয়ান তিন প্রকার।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

অবশ্যই পড়ুন: গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায়

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan

সিএস খতিয়ান। (Cadastral Survey)

এই উপমহাদেশে সর্বপ্রথম যে জরিপ হয় সেটাই হচ্ছে সিএস খতিয়ান (Cadastral Survey)। এই জরিপ ১৮৮৭ সালে শুরু হয়ে ১৯৪০ সালে শেষ হয়।


এই জরিপ কক্সবাজারের রামুতে শুরু হয় এবং দিনাজপুরে শেষ হয়। জরিপ চলাকালে সিলেট আসাম প্রদেশ এর সাথে সংযুক্ত এবং পার্বত্য চট্রগ্রাম জমিদারি প্রথার সাথে বাঙ্গালীদের বিরোধ থাকায় এই দুটি অঞ্চল সিএস জরিপের আওতায় আনা হয় নাই।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


সুতরাং সিএস জরিপ হচ্ছে বাংলাদেশের সর্বপ্রথম জরিপ এবং এর খতিয়ানকে সিএস খতিয়ান বলা হয়।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

এই খতিয়ান উপর থেকে নিচ লম্বালম্বিভাবে হয়। একদম উপরে বাংলাদেশ ফরম নং ৫৪৬৩ লিখা থাকে।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

এসএ খতিয়ান । (State Acquisition Survey)

১৯৫০ সালে জমিদারি অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ব আইন পাশ হয়। আইন পাশের পর ততকালিন সরকার জমিদারি অধিগ্রহণ সাবস্ত করেন।


এই সময় সরকারি আমিনগণ সরেজমিন অর্থাৎ মাঠে না গিয়ে অফিসে বসে সিএস খতিয়ান সংশোধন করে খতিয়ান তৈরি করেন। এটাকে এসএ খতিয়ান বলে। কোন কোন অঞ্চলে এ খতিয়ানকে টেবিল খতিয়ান বা ৬২ খতিয়ান বলা হয়।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


সরেজমিন না গিয়ে জরিপ পরিচালনা করা হয় বলে এ খতিয়ানে অনেক ধরণের অসমতা দেখা দেয়।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


এ খতিয়ান সাধারণত এক পৃষ্ঠায় হয়ে থাকে এক কখন প্রিন্ট হয় না অর্থাৎ হাতে লেখা খতিয়ান হচ্ছে এসএ খতিয়ান।

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

পড়ুন: শুভ জন্মদিন ভাই স্ট্যাটাস 

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan

 আরএস খতিয়ান। (Revisional Survey)

সিএস খতিয়ান সম্পন্ন হওয়ার ৫০ বছর অতিক্রম করে আরিএস জরিপ শুরু হয়। আগের খতিয়ানের ভুল সংশোধন করে এতটাই স্বচ্ছ করা হয় যে, মালিকানা, দখলদার বিরোধ কিংবা ক্রয়-বিক্রয় করার ক্ষেত্রে এটির উপর নির্ভর করতে হয়।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর এই জরিপ পরিচালনা করা হয় বলে এর খতিয়ানকে বাংলাদেশ খতিয়ানও বলা হয়।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


আরএস খতিয়ান সিএস খতিয়ানের মত লম্বালম্বি দাগ টানা থাকে তবে এটি এক পৃষ্ঠায় হয়। ফরমের একদম উপরে হাতের ডান পাশে ‘রেসার্তে নং’ লেখা থাকে।

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

বিএস খতিয়ান/সিটি জরিপ। (City Survey)

বাংলাদেশে সর্বশেষ যে জরিপ (1998-1999 সালে) অনুষ্ঠিত হয় যেটার কাজ এখন চলমান রয়েছে। টাকা অঞ্চলে এটা মহানগর জরিপ হিসাবে পরিচিত লাভ করে।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


বি এস খতিয়ানে ৯ টা কলাম থাকে এবং জমির ধরণ কি তা উল্লেখ থাকে। যেমন- চাষের জমি, পুকুর ইত্যাদি।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan

জমির মালিকানা বের করার প্রয়োজন হয় কেন?

জমি ক্রয় করার আগে ক্রয়কারিকে অবশ্যই মালিকানা যাচাই করে নিতে হয়। কেননা বাংলাদেশে প্রতারকের অভাব নেই। নকল মালিক সেজেও জমি বিক্রয় করার প্রতারণা করতে পারে অনেকেই।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


এছাড়াও জমি জমা নিয়ে বিরোধ মিমাংসা করার ক্ষেত্রেও জমির মালিকানা যাচাই করার প্রয়োজন হয়।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


ওয়ারিশদের প্রাপ্ত সম্পত্তি বন্টন করার আগেও মৃত ব্যক্তির মালিকানা যাচাই করার প্রয়োজন হতে পারে। কেননা অন্য কারো জমি দাপুটে ভোগদখল করার নজির আমাদের দেশে আছে।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

জমির মালিকানা যাচাই করার নিয়ম

বর্তমানে আপনি দুইভাবে জমির মালিকানা যাচাই করতে পারবেন। যেমন - এক. কোন খতিয়ান সম্পর্কে যদি আপনার সন্দেহ হয় তাহলে খতিয়ানটি নিয়ে সেটেলমেন্ট অফিসে গিয়ে খতিয়ানের ভলিয়াম দেখুন।


আপনার খতিয়ান ভলিয়মের সাথে মিল থাকলে খতিয়ানটি সঠিক নচেৎ জালিয়াতি করা হয়েছে।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


দুই. অনলাইনের মাধ্যমেও খতিয়ানটি যাচাই করে নিতে পারেন নিজে নিজেই। আপনি যদি স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকেন তাহলে সেটে ইন্টারনেট সংযোগ করে অনলাইনে জমির কাগজ দেখতে পারেন। 

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

অবশ্যই পড়ুন: মোবাইল অ্যাপ থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় - Mobile App Thaka Income

111

খতিয়ান বের করার নিয়ম বা কিভাবে জমির খতিয়ান উঠাবেন?

খতিয়ান উঠানো বা বর্তমানে খতিয়ান বের করার দুটি পদ্ধতি রয়েছে। একটি হচ্ছে ডিজিটাল পদ্ধতি অপরটি হচ্ছে মেনুয়াল পদ্ধতি।

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

ডিজিটাল পদ্ধতিতে আপনি দু প্রকার খতিয়ান উঠাতে পারবেন। খতিয়ানের অনলাইন কপি এবং ডাক যোগে খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি পাওয়ার জন্য অনলাইনে আবেদন।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


জমির খতিয়ান উঠানোর মেনুয়াল পদ্ধতি হচ্ছে- খতিয়ান নাম্বার বা জমির দাগ নাম্বার নিয়ে সেটেলমেন্ট অফিসে যোগাযোগ করে খতিয়ান তোলা।


সেটেলমেন্ট থেকে খতিয়ান উঠাতে ১০০ (একশত) টাকা খরচ হয়। আর অনলাইনে খতিয়ান উঠাতে ৫০ টাকা খরচ লাগবে।

 

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

 অবশ্যই পড়ুন: গেম খেলে সহজে টাকা আয়

1111

অনলাইনে জমির মালিকানা যাচাই ও খতিয়ান বের করার নিয়ম

ডিজিটাল এই যুগে ভূমি সংক্রান্ত সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে কোথাও না গিয়ে নিজে নিজে বাসায় বসে ইন্টারনেটের মাধ্যমে জমির মালিকানা যাচাই করাসহ যে কোন খতিয়ান বের করা যায় খুব সহজেই।


ল্যাপটপ/কম্পিউটার কিংবা মোবাইলে ইন্টারনেট সংযোগ মোবাইলে জমির খতিয়ান দেখে নিতে পারবেন।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি


এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে ‘ ই পর্চা- অনলাইনে জমির খতিয়ান’ ইনফোটি দেখুন।


Disclaimer : Website, Home Bdinfo

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

মৌজা ম্যাপ এখন বাড়িতে বসেই ডাউনলোড করা যাচ্ছে।

মৌজা ম্যাপ ডাউনলোড করার জন্য আপনাকে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের  ভূমি দপ্তরের নিজস্ব ওয়েবসাইট এ যেতে হবে। ভূমি দপ্তরের ওয়েবসাইট এর জন্য ক্লিক করুন।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

 

 

এই ওয়েবসাইট এ গিয়ে মেনু বার থেকে, প্রথমে আপনাকে এখানে একাউন্ট তৈরি করতে হবে এবং লগ ইন করতে হবে।লগ ইন করার পর সিটিজেন সার্ভিস ( Citizen Service) এ ক্লিক করবেন এবং এই মেনুর আন্ডার এ অনেক অপশন দেখতে পাবেন , Service Delivery অপশনে ক্লিক করবেন , তারপর Mouza Map Request অপশনে ক্লিক করবেন।[খতিয়ান ও দাগের তথ্য খতিয়ান প্লট ইনফরমেশন]জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

এবার যে এপ্লিকেশন ফর্ম টি আসবে , সেই ফর্ম টি যথাযথ ভাবে পূরণ করবেন এবং Calculate Fee অপশনে ক্লিক করবেন । এখানে মোবাইল নং এবং ইমেইল আই ডি , সঠিক ভাবে দেবেন , তার কারণ , মোবাইল নং এবং ইমেইল আই ডি তে ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড যাবে (OTP)  , সেটা নির্দিষ্ট জায়গায় , পুট করতে হবে।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

Calculate Fee অপশনে ক্লিক করার পর আপনি এপ্লিকেশন নম্বর পেয়ে যাবেন এবং পশে ফিস এর পরিমান ও জানতে পারবেন। এরপর নিদির্ষ্ট ফিস্ অনলাইন এ র মাধ্যমে জমা করলেই , আপনি মৌজা ম্যাপ ডাউনলোড করতে পেয়ে যাবেন ।জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

[জমির দাগ ও খতিয়ান তথ্য,খতিয়ান ও দাগের তথ্য খতিয়ান প্লট ইনফরমেশন,জমির রেকর্ড যাচাই,আপনার জমির মৌজাম্যাপ থেকে দাগ দেখুন,দাগ নাম্বার দিয়ে জমির মালিকে,আপনার জমির মৌজাম্যাপ থেকে দাগ দেখুন,জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি,জমির মালিকানা বের করার উপায়]জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি

  পড়ুন: সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস শাখা 

111

শেষ কথা

সম্পুর্ন পোস্ট টি পড়ার  জন্য আপনার ধন্যবাদ।  আশাকরি আমাদের আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে আপনি কিভাবে অনলাইনে জমির খতিয়ান চেক করতে পারেন এবং দাগ নম্বর থেকে জমির খতিয়ান বের করতে পারেন এ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি।


অবশ্যই পড়ুন:


পেপাল একাউন্ট খোলার নিয়ম 

►►শুভ জন্মদিন ভাই স্ট্যাটাস 

►►ব্লগ থেকে কিভাবে আয় এর

►►গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায় 

►►সবচেয়ে বৃহত্তম দেশ কোনটি?

►►নিজের রিংটোন তৈরি করবেন

►►ভালবাসার শুভেচ্ছা স্ট্যাটাস

►► লোকেশন বের করার নিয়ম?

ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোড করুন


জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan

জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan জমির দাগ নম্বর থেকে খতিয়ানটি বের করুন দাগসূচি jomir-khotiyan






Trick Bangla 24

স্বীকারোক্তিঃ এখানে উপস্থাপিত সকল তথ্যই দক্ষ ও অভিজ্ঞ লোক দ্বারা ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করা। যেহেতু কোন মানুষই ভুলের ঊর্দ্ধে নয় সেহেতু আমাদেরও কিছু অনিচ্ছাকৃত ভুল থাকতে পারে। সে সকল ভুলের জন্য আমরা আন্তরিকভাবে ক্ষমাপ্রার্থী। আপনার নিকট দৃশ্যমান ভুলটি আমাদেরকে নিম্নোক্ত মেইল / পেজ -এর মাধ্যমে অবহিত করার অনুরোধ জানাচ্ছি। ই-মেইলঃ trickbangla024@gmail.com

*

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন