গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ সহ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার বাংলা উচ্চারণ সহ

গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার

গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - 

গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের কোন গুনাহ ছিল না। তারপরও তিনি নিয়মিত আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইতেন। উদ্দেশ্য হল, আল্লাহর কাছে নিজের বিনয় প্রকাশ করা এবং উম্মতকে শিখানো। আমাদের গুনাহের শেষ নেই। 

তাই আমাদের গুনাহ মাফের জন্য বেশি বেশি করে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের শিখানো দোয়া ও আমল গুলো করা জরুরি। গুনাহ মাফের জন্য কুরআন ও হাদিস থেকে কিছু দোয়া ও আমল উল্লেখ করবো ইনশাআল্লাহ। গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার -

 

আরো পড়ুন:


►► জীবনে ব্যর্থতার কারণ

►► কন্টেন্ট রাইটিং করে আয়

►► মোবাইল ফোনের দাম 2022

►► অনলাইন আয়ের সাইট 1022

►► অনলাইনে গল্প লিখে টাকা আয়

কিভাবে ফেসবুক পেজ খুলতে হয় 

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস শাখা সমূহে

সার্টিফিকেট হারিয়ে গেলে করনীয়?

স্বামী বিবেকানন্দের শিক্ষামূলক বাণী 

অনলাইনে ইনকাম করার সহজ উপায়

 গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - 

গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার

১. দোয়া-

اَللّٰهُمَّ اغْفِرْ لِيْ خَطِيْئَتِيْ، وَجَهْلِيْ، وَإِسْرَافِيْ فِيْ أَمْرِيْ، وَمَا أَنْتَ أَعْلَمُ بِهِ مِنِّيْ، اَللّٰهُمَّ اغْفِرْ لِيْ هَزْلِيْ وَجِدِّيٍ، وَخَطَئيْ، وَعَمْدِيْ، وَكُلُّ ذَلِكَ عِنْدِي

 

বাংলা উচ্চারণ-

আল্লাহুম্মাগ ফির লী খত্বীআতী ওয়া জাহলী ওয়া ইসরাফী ফী আমরী, ওয়া মা আনতা আ'লামু বিহী মিন্নী। আল্লাহুম্মাগ ফির লী হাযলী, ওয়া জিদ্দী ওয়া খত্বায়ী ওয়া আমাদী, ওয়া কুল্লু যালিকা ইনদী।

 

অর্থ: হে আল্লাহ! আপনি আমার ভুল-ত্রুটি গুলো ক্ষমা করে দিন। আমার অজ্ঞতা, আমার কাজে বাড়াবাড়ি এবং যেভুলগুলো সম্পর্কে আপনি আমার চেয়ে বেশি জানেন সেগুলো ক্ষমা করে দিন। 

হে আল্লাহ! আপনি আমার হাসি ঠাট্টা মুলক গুনাহগুলো ক্ষমা করে দিন। আমার প্রকৃত গুনা, আমার অনিচ্ছাকৃত গুনাহ, আমার ইচ্ছাকৃত গুনাহ ক্ষমা করে দিন। এই সবগুলোই আমার মধ্যে বিদ্যমান আছে।

 

হাদীস: 

হযরত আবু মুসা আশ'আরী রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এ বাক্যগুলো দ্বারা দোয়া করতেন- "আল্লাহুম্মাগ ফির লী খত্বীআতী ওয়া জাহলী ওয়া ইসরাফী ফী আমরী, ওয়া মা আনতা আ'লামু বিহী মিন্নী। 

আল্লাহুম্মাগ ফির লী হাযলী, ওয়া জিদ্দী ওয়া খত্বায়ী ওয়া আমাদী, ওয়া কুল্লু যালিকা ইনদী"।

 

সহিহ বুখারি, হাদিস নং-৬৩৯৮, লিখক: মুহাম্মাদ ইবনে ইসমাঈল, জন্ম:১৯৪ হিজরী, মৃত্যু: ২৫৬ হিজরী

 সহিহ মুসলিম, হাদিস নং-২৭১৯,  লিখক: মুসলিম ইবনে হাজ্জাজ রহ. জন্ম:২০৬ হিজরী, মৃত্যু:২৬১ হিজরী।

 

গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ

২. দোয়া-

أسْتَغْفِرُ اللهَ العَظِيْمَ الَّذِيْ لاَ إلٰهَ إلاَّ هُوَ، الحَيُّ القَيُّوْمُ، وَأتُوبُ إلَيهِ

 

বাংলা উচ্চারণ-

আস্তাগফিরুল্লাহাল আযীমাল্লাযী লা ইলাহা ইল্লা হূয়াল হাইয়্যুল ক্বাইয়্যূমু ওয়া আতূবু ইলাইহ।

 

অর্থ: আমি মহান আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাচ্ছি, তিনি ছাড়া আর কোন উপাস্য নেই। তিনি চিরঞ্জীব চিরস্থায়ী এবং আমি তার নিকট তাওবা করছি।

 

হাদীস:

হযরত যায়েদ ইবনে হারেসা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি বলবে- "আস্তাগফিরুল্লাহাল আযীমাল্লাযী লা ইলাহা ইল্লা হূয়াল হাইয়্যুল ক্বাইয়্যূমু ওয়া আতূবু ইলাইহ"।

 তাকে ক্ষমা করে দেওয়া হবে। যদিও সে যুদ্ধক্ষেত্র থেকে পলায়ন করে।

 

সুনানে তিরমিজি, হাদিস নং-৩৫৭৭, লিখক: মুহাম্মাদ ইবনে ঈসা, জন্ম: ২০৯ হিজরী, মৃত্যু: ২৭৯ হিজরী।

তাবারানী, হাদিস নং-৪৬৭০, লিখক: সুলাইমান ইবনে আহমাদ: জন্ম: ২৬০ হিজরী, মৃত্যু: ৩৬০হিজরী।  

আবু দাউদ, হাদিস নং-১৫৫৪,লিখক: সুলাইমান ইবনে আশআছ, জন্ম: ২০২ হিজরী, মৃত্যু: ২৭৫ হিজরী।

গুনাহ মাফের ইস্তেগফার

৩. দোয়া- 

সুবহানাল্লাহ ৩৩বার, আলহামদুলিল্লাহ্ ৩৩বার, আল্লাহু আকবার ৩৩বার পড়ার পর নিচের দোয়া টি একবার পড়ে একশত পূর্ণ করবে।

 

لَا إِلٰهَ إِلَّا اللهُ وَحْدَهُ لَا شَرِيْكَ لَهُ ، لَهُ الْمُلْكُ وَلَهُ الْحَمْدُ وَهُوَ عَلٰى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيْرٌ

 

বাংলা উচ্চারণ- 

লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহূ লা শারীকা লাহু লাহুল মুলকু ওয়া লাহুল হামদু ওয়া হুয়া আলা কুল্লি শাইয়িন ক্বাদীর।

 

অর্থ: এক আল্লাহ ছাড়া আর কোন উপাস্য নেই। তাঁর কোন শরীক নেই। সকল রাজত্ব তাঁরই। সকল প্রশংসা তাঁরই এবং তিনি সবকিছুর উপর ক্ষমতাবান।

 

হাদীস:

হযরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি প্রত্যেক নামাজর পর

 ৩৩বার সুবহানাল্লাহ, ৩৩বার আলহামদুলিল্লাহ্, ৩৩বার আল্লাহু আকবার বলার পর 

"লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহূ লা শারীকা লাহু লাহুল মুলকু ওয়া লাহুল হামদু ওয়া হুয়া আলা কুল্লি শাইয়িন ক্বাদীর"।

একবার বলে একশত পূর্ণ করবে, তার গুণাগুলো ক্ষমা করে দেওয়া হবে যদিও তা সমুদ্রের ফেনা সমান হয়।

সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-৫৯৭,  লিখক: মুসলিম ইবনে হাজ্জাজ রহ. জন্ম:২০৬ হিজরী, মৃত্যু:২৬১ হিজরী।

 

৪. প্রতিদিন একশত বার "সুবহানাল্লাহ" বললে এক হাজার নেকী লেখা হবে অথবা এক হাজার গুনাহ মাফ হবে।

 

হাদীস:

হযরত মুসআব ইবনে সা'দ ইবনে আবী ওয়াক্কাস রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমাকে আমার পিতা বলেছেন, আমরা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর কাছে ছিলাম।  

তিনি আমাদেরকে বললেন, তোমাদের কেউ প্রতিদিন ১০০০নেকী অর্জন করতে কি অক্ষম? আমাদের মধ্যে থেকে কোন একজন তাঁকে জিজ্ঞাসা করল, কিভাবে আমাদের কেউ ১০০০ নেকি অর্জন করবে? 

তখন তিনি বললেন, ১০০ বার সুবহানাল্লাহ বলবে। তাহলে তার জন্য ১০০০ নেকী লেখা হবে অথবা তার থেকে ১০০০ গুনাহ মিটিয়ে দেওয়া হবে।

সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-২৬৯৮,  লিখক: মুসলিম ইবনে হাজ্জাজ রহ. জন্ম:২০৬ হিজরী, মৃত্যু:২৬১ হিজরী।

 

৫. প্রতিদিন নিম্ন বাক্যটি একশত বার পাঠ করা।

 

لَا إِلٰهَ إِلَّا اللهُ وَحْدَهُ لَا شَرِيْكَ لَهُ ، لَهُ الْمُلْكُ وَلَهُ الْحَمْدُ وَهُوَ عَلٰى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيْرٌ

 

বাংলা উচ্চারণ- 

লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহূ লা শারীকা লাহু লাহুল মুলকু ওয়া লাহুল হামদু ওয়া হুয়া আলা কুল্লি শাইয়িন ক্বাদীর।

 

অর্থ: এক আল্লাহ ছাড়া আর কোন উপাস্য নেই। তাঁর কোন শরীক নেই। সকল রাজত্ব তাঁরই। সকল প্রশংসা তাঁরই এবং তিনি সবকিছুর উপর ক্ষমতাবান।

 

হাদীস:

হযরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি

 

"লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহূ লা শারীকা লাহু লাহুল মুলকু ওয়া লাহুল হামদু ওয়া হুয়া আলা কুল্লি শাইয়িন ক্বাদীর"।

 

প্রতিদিন একশত বার পাঠ করবে, তার জন্য দশটি গোলাম আজাদ করার সমান সওয়াব হবে। তার জন্য ১০০টি নেকী লেখা হবে। তার আমলনামা থেকে ১০০ টি গুনাহ মুছে দেওয়া হবে। 

সে ঐদিন সন্ধ্যা পর্যন্ত শয়তান থেকে হেফাজতে থাকবে। তার মত কেউ কেয়ামতের দিন উত্তম আমল নিয়ে উপস্থিত হতে পারবে না। তবে ওই ব্যক্তি যে তার চেয়ে বেশি আমল করবে।

সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-২৬৯১,  লিখক: মুসলিম ইবনে হাজ্জাজ রহ. জন্ম:২০৬ হিজরী, মৃত্যু:২৬১ হিজরী।

 

৬. রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের অনুকরণ করা এবং তাকে মনেপ্রাণে ভালোবাসা।

 

قُلْ إِنْ كُنْتُمْ تُحِبُّونَ اللَّهَ فَاتَّبِعُونِي يُحْبِبْكُمُ اللَّهُ وَيَغْفِرْ لَكُمْ ذُنُوبَكُمْ ۗ وَاللَّهُ غَفُورٌ رَحِيمٌ

 

অর্থ:

 বলুন, যদি তোমরা আল্লাহকে ভালবাস, তাহলে আমাকে অনুসরণ কর, আল্লাহও তোমাদেরকে ভালবাসেন এবং তোমাদের পাপ মার্জনা করে দিবেন। আর আল্লাহ হলেন অধিক ক্ষমাকারী অসীম দয়ালু। সূরা আল ইমরান আয়াত-৩১

 

৭. রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর উপর দুরুদ পাঠ করা।

 

হাদীস:

হযরত আনাস ইবনে মালেক রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি আমার উপর একবার দরূদ পড়বে আল্লাহ তার প্রতি দশটি রহমত নাযিল করবেন। তার দশটি গুনাহ মাফ করে দিবেন। দশটি মর্যাদা বৃদ্ধি করে দিবেন।

 সুনান নাসায়ী, হাদিস নং-১২৯৭

 

৮. উত্তমরুপে অজু করা।

 

হাদীস:

হযরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যখন কোন মুসলিম ব্যক্তি অথবা (তিনি বলেছেন) মুমিন ব্যক্তি অজু করে অতঃপর সে তার চেহারা ধৌত করে, তার চেহারা থেকে পানির সাথে অথবা (তিনি বলেছেন) পানির শেষ ফোঁটার সাথে প্রত্যেক ঐ গুণাহগুলো বের হয়ে যায়, যে গুলোর দিকে সে তার দুই চোখ দিয়ে তাকিয়েছিল। 

যখন সে তার দুই হাত ধৌত করে পানির সাথে অথবা (তিনি বলেছেন) পানির শেষ ফোটার সাথে ঐ সকল গুণাহ তার হাত থেকে বের হয়ে যায় যেগুলো তার দুই হাত করেছিল। 

যখন সে তার দুই পা ধৌত করে পানির সাথে অথবা (তিনি বলেছেন) পানির সাথে প্রত্যেক ঐ গুনাহ বের হয়ে যায় যেগুলো তার দুই পায়ে হেটে করেছিল। শেষ পর্যন্ত সে গুনাহ থেকে পরিষ্কার হয়ে যায়।

সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-২৪৪,  লিখক: মুসলিম ইবনে হাজ্জাজ রহ. জন্ম:২০৬ হিজরী, মৃত্যু:২৬১ হিজরী।

 

হাদীস: 

হযরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, আমি কি তোমাদেরকে এমন কাজের পথ দেখাবো না? যার দ্বারা আল্লাহ তাআলা গুণাহগুলো মিটিয়ে দেন এবং মর্যাদা উঁচু করেন! তারা বলল, অবশ্যই হে আল্লাহর রাসূল! 

তিনি বললেনঃ কষ্ট অবস্থায়ও পরিপূর্ণ ভাবে ওযু করা। মসজিদে বেশি বেশি করে যাওয়া। এক নামাজের পর অপর নামাজের অপেক্ষা করা। এটাই তোমাদের 'রিবাত্ব' অর্থাৎ, ইসলামী সীমান্ত পাহারা দেওয়া। এটাই তোমাদের রিবাত্ব, অর্থাৎ, ইসলামী সীমান্ত পাহারা দেওয়া।

 সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-২৫১,  লিখক: মুসলিম ইবনে হাজ্জাজ রহ. জন্ম:২০৬ হিজরী, মৃত্যু:২৬১ হিজরী।

 

৯. পাঁচ ওয়াক্ত যথাসময়ে নামাজ পড়া।

 

হাদীস: 

হযরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম একবার সাহাবাদেরকে বললেন, তোমাদের কি মনে হয় যে কারো বাড়ির পাশে যদি নদী থাকে আর সে সেই নদীতে প্রতিদিন পাঁচবার করে গোসল করে তার শরীরে কি কোন প্রকার ময়লা থাকবে? 

তারা বললেন, না, তার শরীরে কোন ময়লা থাকবেনা। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের দৃষ্টান্তও এরূপ। এর মাধ্যমে আল্লাহ রাব্বুল আলামিন তার বান্দার পাপসমূহ মিটিয়ে দেন।

সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-667,  লিখক: মুসলিম ইবনে হাজ্জাজ রহ. জন্ম:২০৬ হিজরী, মৃত্যু:২৬১ হিজরী।

 

১০. জুমার নামাজ আদায় করা।

হযরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি ভালো করে অজু করল এবং জুমার নামাজ আদায় করার জন্য মসজিদে আসল, এরপর মনোযোগ সহকারে ইমাম সাহেবের বয়ান শুনল এবং চুপ থাকল। 

আল্লাহ তায়ালা তাঁর গত জুমআ ও এই জুম'আর মধ্যবর্তী সময়ের গুনাহ মাফ করে দেবেন। আরও অতিরিক্ত তিন দিনের গুনাহ মাফ করে দিবেন।

 সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-৮৫৭,  লিখক: মুসলিম ইবনে হাজ্জাজ রহ. জন্ম:২০৬ হিজরী, মৃত্যু:২৬১ হিজরী।

 

১১. জামাতের সাথে নামাজ পড়ার জন্য মসজিদে গমন করা।

 

হাদীস:

হযরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, জামাতের নামাজ ঘরে বা বাজারের নামাজ অপেক্ষা পঁচিশ গুণ বেশি সওয়াব রাখে। 

কারণ, বান্দা যখন ভালো করে ওযু করে এবং শুধু নামাযের উদ্দেশ্যে ঘর থেকে বের হয়, তাহলে প্রতিটি কদমের বিনিময়ে আল্লাহ তাআলা তার একটি করে মর্যাদা বৃদ্ধি করে দেন এবং একটি করে গুনাহ মাফ করে দেন। 

 

সহি বুখারি, হাদিস নং-৬৪৭, লিখক: মুহাম্মাদ ইবনে ইসমাঈল, জন্ম:১৯৪ হিজরী, মৃত্যু: ২৫৬ হিজরী

 

১২. জামাতে সুরা ফাতেহা পাঠ এর পর আমিন বলা।

হাদীস:

হযরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যখন ইমাম 'আমিন' বলবে তোমরাও 'আমিন' বল। কেননা, যার 'আমিন' বলা ফেরেশতাদের 'আমিন' বলার সাথে মিলে যাবে তার পূর্বের সকল গুনাহ ক্ষমা করে দেয়া হবে।

সহিহ বুখারি, হাদিস নং-৭৮০, লিখক: মুহাম্মাদ ইবনে ইসমাঈল, জন্ম:১৯৪ হিজরী, মৃত্যু: ২৫৬ হিজরী

সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-৪১০,  লিখক: মুসলিম ইবনে হাজ্জাজ রহ. জন্ম:২০৬ হিজরী, মৃত্যু:২৬১ হিজরী।

 

হাদীস:

হযরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যখন ইমাম বলবে, "গাইরিল মাগদুবি আলাইহিম ওয়ালাদ দাল্লীন" তোমরা 'আমিন' বলবে। কেননা, যার কথা ফেরেশতাদের কথার সাথে মিলে যাবে তার পূর্বের গুনাহ ক্ষমা করে দেয়া হবে।

 সহি বুখারি, হাদিস নং-৭৮২, লিখক: মুহাম্মাদ ইবনে ইসমাঈল, জন্ম:১৯৪ হিজরী, মৃত্যু: ২৫৬ হিজরী

 

১৩. রুকু থেকে উঠে দাঁড়িয়ে 'আল্লাহুম্মা রব্বানা লাকাল হামদ' বলা।

 

হাদীস: 

হযরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ইমাম যখন রুকু থেকে উঠে দাঁড়িয়ে বলে "সামিআল্লাহু লিমান হামিদাহ" তখন তোমরা বলবে "আল্লাহুম্মা রাব্বানা লাকাল হামদ" কেননা যার তাহমিদ ফেরেশতাদের তাহমিদের" সাথে মিলে যাবে, তার আগের গুনাহ ক্ষমা করে দেয়া হবে।

সহি বুখারি, হাদিস নং-৭৯৬, লিখক: মুহাম্মাদ ইবনে ইসমাঈল, জন্ম:১৯৪ হিজরী, মৃত্যু: ২৫৬ হিজরী

 

আরো পড়ুন:


►► জীবনে ব্যর্থতার কারণ

►► কন্টেন্ট রাইটিং করে আয়

►► মোবাইল ফোনের দাম 2022

►► অনলাইন আয়ের সাইট 1022

►► অনলাইনে গল্প লিখে টাকা আয়

কিভাবে ফেসবুক পেজ খুলতে হয় 

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস শাখা সমূহে

সার্টিফিকেট হারিয়ে গেলে করনীয়?

স্বামী বিবেকানন্দের শিক্ষামূলক বাণী 

অনলাইনে ইনকাম করার সহজ উপায়


 গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - 

 গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - 

 গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার - গুনাহ মাফের দোয়া বাংলা উচ্চারণ । গুনাহ মাফের ইস্তেগফার -

Trick Bangla 24

স্বীকারোক্তিঃ এখানে উপস্থাপিত সকল তথ্যই দক্ষ ও অভিজ্ঞ লোক দ্বারা ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করা। যেহেতু কোন মানুষই ভুলের ঊর্দ্ধে নয় সেহেতু আমাদেরও কিছু অনিচ্ছাকৃত ভুল থাকতে পারে। সে সকল ভুলের জন্য আমরা আন্তরিকভাবে ক্ষমাপ্রার্থী। আপনার নিকট দৃশ্যমান ভুলটি আমাদেরকে নিম্নোক্ত মেইল / পেজ -এর মাধ্যমে অবহিত করার অনুরোধ জানাচ্ছি। ই-মেইলঃ trickbangla024@gmail.com

*

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন