12 টি রোমান্টিক প্রেমের গল্প, সুন্দর প্রেম কাহিনি ও বাংলা প্রেমের গল্প - Bangla Premer Golpo

রোমান্টিক প্রেমের গল্প । সুন্দর প্রেম কাহিনি 

বাংলা প্রেমের গল্প

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

12 টি রোমান্টিক প্রেমের গল্প, সুন্দর প্রেম কাহিনি ও বাংলা প্রেমের গল্প : আপনাদের হাসি খুশি রাখতে এই রোমান্টিক প্রেমের গল্প, সুন্দর প্রেম কাহিনি ও বাংলা প্রেমের গল্প গুলি আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করলাম। 

 

এগুলি বাচ্ছাদের সংঙ্গে ও একসাথে পড়তে পারেন কারণ পোস্ট গুলি সুম্পূর্ণভাবে পরিষ্কার ও কোনো খারাপ শব্ধ ব্যবহার করা হয়নি। তাই পড়তে থাকুন রোমান্টিক প্রেমের গল্প, সুন্দর প্রেম কাহিনি ও বাংলা প্রেমের গল্প


পড়ুন: মজার মজার ভাইরাল বাংলা রোমান্টিক প্রেমের গল্প, সুন্দর প্রেম কাহিনি ও বাংলা প্রেমের গল্প - Mojar Pream, hasir pream ( রোমান্টিক প্রেমের গল্প একদম মিস করবেন না ) 

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

আরো পড়ুন:

►► ফ্রি টাকা ইনকাম ২০২২

►► জীবন নিয়ে বিখ্যাত উক্তি 

►►  হাত কাটা পিকচার ডাউনলোড 

চুল পড়া বন্ধ করার ঘরোয়া উপায় 

►► নতুন মোবাইল ফোনের দাম ২০২২

►► শুভ সকালের সুন্দর ছবি ও কবিতা

৮ হাজার টাকার মধ্যে মোবাইল ফোন

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

রোমান্টিক প্রেমের গল্প

Bangla Premer Golpo

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

আপনাদের হাসি খুশি রাখতে এই রোমান্টিক প্রেমের গল্প, সুন্দর প্রেম কাহিনি ও বাংলা প্রেমের গল্প গুলি আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করলাম। এগুলি বাচ্ছাদের সংঙ্গেও একসাথে পড়তে পারেন কারণ পোস্ট গুলি সুম্পূর্ণভাবে পরিষ্কার ও কোনো খারাপ শব্ধ ব্যবহার করা হয়নি। তাই পড়তে থাকুন রোমান্টিক প্রেমের গল্প

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

১ম পর্ব......

-তোমাকে না কতবার বলেছি এসব পাগলামি না করতে,তারপরেও কেন কর??(নিধি)


- পাগলামি কই দেখলে?তোমাকে একটু নীল শাড়ি অার নীল কাচের চুড়ি পড়ে দেখতে চেয়েছি। (নিলয়)


-পাগলামি নয়তো কি?তুমি জান অামি শাড়ি পড়ি না। তারপরেও কেন বল?

-ঠিক অাছে..পড়তে হবে না।দেখতে চাই না তোমাকে শাড়িতে।


এভাবে মাঝে-মাঝেই নিধি অার নিলয়ের মাঝে ছোট-ছোট বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয়। নিলয় খুবই সাধারন ঘরের ছেলে।তবে ভীষণ রোমান্টিক।অার নিধি কঠিন বাস্তবাদী মেয়ে। নিধি বেশির ভাগ সময়ই নিলয়ের এমন ছোট-ছোট অাবদার অপূর্ণ রেখে দেয়।তবুও নিলয় নিধিকে পাগলের মত ভালোবাসে।


তাদের সম্পর্কের শুরুটাও বেশ অদ্ভুত।

দুবছর হয়ে গেল তাদের সম্পর্কের। তবুও নিলয়ের কাছে মনে হয়, এইত সেদিনের কথা ।


-দোস্ত কই যাস?(রাফি)

-এইত দোস্ত একটু শহরে যাব। বোনের জন্য ঘৃতকুমারী অানতে হবে। (নিলয়)

থাক দোস্ত পরে অাড্ডা দিব। বাই।

নিলয় এক দোকানের সামনে এসে দাড়ালো। বেশ ভীড়। মনে হয় সবাই অাজই গাছের চারা কিনতে এসেছে।


-এই যে মামা..ঘৃতকুমারী গাছ অাছে কি??

-যে মামা,এডাই অাছে।

-কত মামা?

নিলয় ঘৃতকুমারী নিয়ে রাস্তায় নামতেই হঠাত পেছন থেকে এক মেয়ে কন্ঠের ডাক শুনতে পেল-

-এই যে মিস্টার শুনছেন

-এক্সকিউজ মি,মিস্টার

নিলয় এতক্ষনে বাস্তবে ফিরল।

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

 প্রেমের গল্প

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

-জি অামাকে বলছেন?(নিলয়)

-জি,অামার একটা হেল্প করবেন?

-বলেন শুনি(নিলয়)

-অাসলে অামি ঘৃতকুমারী নিতে এসেছি। কিন্তু দোকানে নাকি একটাই ছিল সেটাও অাবার অাপনি নিয়েছেন, তাই অাপনাকে বলছি যদি কিছু মনে না করেন ওটা অাজ অামাকে দিন। খুব দরকার। অামি অাপনাকে দ্বিগুন টাকা দিব।

-টাকা লাগবে না। নিন

সাথে-সাথে মেয়েটা নিয়ে চলে গেল। অাশ্চর্য একবার ধন্যবাদ দেয়ারও প্রয়োজন মনে করল না। নিলয় নিজেও জানে না কেন সে এমন করল।

 

সপ্তাহখানিক পরে এক দিন....নিলয় শপিং করতে এক মলে এসেছে।

-এই যে ভাই, ঐ শাড়িটা দেখি তো

এমন সময় এক মেয়ে নিলয়ের পাশে এসে ঐ একই শাড়িই দেখতে চাইছে। ঠিক তখনিই

-অারে অাপনি সেই ঘৃতকুমারী না?

 

-জি..ওহ অাপনি...অাচ্ছা অাপনার কিন্তু ধন্যবাদ পাওনা অাছে।

-সেদিন এর ঐ ঘৃতকুমারীর জন্য?

 

-বাহ অাপনার তো দারুণ স্মৃতি শক্তি..অাসলে ঐদিন অামি ভীষণ তাড়ায় ছিলাম তাই অাপনাকে thanks ও দেয়নি।

-Its ok...অাজ অামাকে একটা help করেন তাহলেই হবে।

-জি অবশ্যই বলুন

-অামারর শাড়ি কিনতে হবে। But কোনটা নিব বুঝতে পারছি না

-সিওর...ঐ যে ঐটা নিতে পারেন.কিন্তু কার জন্য?

-অামার মায়ের জন্য।

-ওহ তাহলে এটাই ভালো লাগবে

-thanks.. যদি কিছু মনে না করেন তাহলে অামরা কি একসাথে কফি খেতে পারি।

-সরি অাজ না। অন্যকোন দিন

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

প্রেম কাহিনি

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

অাজব.. মেয়েটাকে কফি অফার করলাম অথচ সে না করে দিল। মেয়েটা বেশ mature বটে। অারে ধুর মেয়েটার তো নামই জানা হল না। নামটা যে জানতে চাইব তার খেয়ালই ছিল না। মেয়েটার চোখের দিকে তাকালে কেমন যেন ঘোর কাজ করে। কিছুই মনে অাসে না। মনে হয় অনন্তকাল ঐ চোখে চেয়ে হারিয়ে যায়।

 

এসব ভাবতে-ভাবতে নিলয় বাড়ি ফিরে যায়। এরপর থেকে নিলয় প্রায়ই মেয়েটার কথা ভাবতে থাকে। যেন মেয়েটাকে নিলয় ভালোবেসে ফেলেছে। মজার ব্যাপার হল যার প্রেমে সে পড়েছে তার নামটা পর্যন্ত জানে না।তাই নিলয় মনে-মনে তাকে ঘৃতকুমারী কন্যা নামেই ডাকে।

 

এরপর প্রায় মাসখানেক কেটে গেছে। নিলয়ের কলেজে অাজ নবীন বরণ অনুষ্ঠান। নিলয় একটা গান দিয়েছে। তারই অনুশীলন করছিল। মাঠটা সুন্দর করে সাজানো হয়েছে। নিলয় ও তার বন্ধুরা মিলে পুরো অনুষ্ঠান এর অায়োজন করেছে।

-অারে অাপনি এখানে?

 

নিলয় অাবারও সেই চিরচেনা কন্ঠের ডাক শুনে চমকে ওঠে। পিছু ফিরে দেখে সেই ঘৃতকুমারী কন্যা। অাজ মেয়েটাকে অপরূপা লাগছে। খুব সুন্দর করে সেজেছে।

-অাচ্ছা অাপনি অামাকে দেখলে কোথায় যেন হারিয়ে যান। ব্যাপার কি বলেন তো?

-সরি। অাপনি অামাদের কলেজে?

 

-এইত অামার ছোট ভাইয়ের নবীন বরন দেখতে এসেছি।

-ওহ..অাপনার ভাই এই কলেজে পরে?(অাগে জানলে যে কি করতাম)

-কিছু বললেন?

-না..অাচ্ছা মিস ঘৃতকুমারী অাপনি কতক্ষন থাকবেন এখানে?

-ঠিক নেই..যদি অাপনাদের প্রোগ্রাম ভালো লাগে তাহলে শেষ করেই যাব।বাই দা ওয়ে অামার নাম কিন্তু নিধি।

-সুন্দর নাম। একদম অাপনার মতই।

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

-flirt করছেন?

-তা অার পারলাম কই। অাপনি কই যেন পড়ছেন?

-Dhaka Medical college & Hospital এ সেকেন্ড ইয়ার। অাপনার কিন্তু পরিচয় দিলেন না।

-ওহ সরি... অামি নিলয়.. এই কলেজেই science department এ final year এ..

-হুম... অাচ্ছা অাপনি অাজ কিছু দেননি?

-হুম.. অামার একটা গান অাছে।

-তাই..কেমন গান করেন অাপনি?

-একটু পরেই জানতে পারবেন।

একটুপর নিলয় গান করবে।যদিও নিলয় খুব ভালো গায়। তবুও অাজ তার খুব নার্ভাস লাগছে।

 

নিলয় গান গাইছে

""হও যদি ঐ নিল অাকাশ,

অামি মেঘ হব অাকাশের

হও যদি অথৈ সাগর,

অামি ঢেউ হব সাগরের"""

অার মাঝে-মাঝেই নিধির চোখে চোখ পরছে। নিধি উদাস ভাবে গান শুনছে। যেন হঠাত কিছু হারিয়ে সে অাজ নিস্ব।

-বাহ দারুন গাইতে পারেন অাপনি।

-তাহলে তো অামার গান গাওয়া সার্থক।

-মানে..বুঝলাম না।

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

-কিছু না। অাচ্ছা অামরা কি বন্ধু হতে পারি?

-হতে পারি যদি অাপনি অামাকে অাজ কফি খাওয়ান।

-oh sure..why not....

এভাবে শুরু হয় নিধি অার নিলয়ের বন্ধুত্বের অধ্যায়। নিলয় মাঝে-মাঝেই এমন সব কান্ড করত নিধির জন্য যে নিধি অবাক যেত।

এইত সেদিন..

-নিধি অাজ বিকালে নদীর পাড়ে অাসবি?

-কেন...নৌকায় করে ঘুরবি নাকি?

-না.. তুই অাসলেই দেখতে পারবি।

-ওকে অাসছি।

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

 নতুন প্রেমের গল্প,

নিলয় অাজ নদীর পাড়ে নিধিকে অাসতে বলেছে কারন অাজ নিলয় তার জন্য নদী থেকে তাজা শাপলা ফুল এনে দিবে। চাইলে নিলয় তাকে পরেও দিতে পারত কিন্তু তাতে শাপলা ফুল তাজা থাকবে না। নিলয়ের এসব পাগলামিতে নিধি সায় দিত না। কিন্তু মনে মনে ঠিকই খুব পছন্দ করত।

 

এভাবেই চলতে থাকে তাদের সম্পর্ক। এরমাঝে নিলয় নিধিকে অনেক বার ভালোবাসার কথা বলতে চেয়েছে কিন্তু পারেনি। কিছুদিন পর রাত ১২টায় নিলয় নিধিকে ফোন করে নিধির বারান্দায় অাসতে বলে...

-নিধি একটু বারান্দায় অায়তো

-এতরাতে বারান্দায়? তুই কি পাগল হয়েছিস?

 

-প্লিজ না করিস না। অামি তোর বাসার সামনেই অাছি

নিধি অার থাকতে না পেরে বারান্দায় যায়। দেখে... নিলয় গীটার হাতে অার তার সামনে অনেকগুলো মমবাতি জালানো।অার নিলয় বলছে শুভ জন্মদিন নিধি। গানের সুরে সুরে তখন নিলয় তার ভালোবাসার কথাও নিধিকে জানিয়ে দেয়। নিধি শুধু অবাক হয়ে দেখতে থাকে। যেন এমন দৃশ্য নিধি অাগে কখনও দেখেনি। 

 

গভীর রাতের মোহময় মায়া অার হাজারও জোনাকির অালোয় নিলয় তার ভালোবাসার মানুষটার মুখ থেকে ভালোবাসি কথা শোনার জন্য অধীর অাগ্রহে অপেক্ষায় দাড়িয়ে এই সুন্দর মায়াময় মুহূর্ত শেষ না হবার প্রতীক্ষা করছে।... 


রোমান্টিক প্রেমের গল্প অভিমানী বউ

লেখক :


♥️❤️ Rupok 🖤♥️

 

গল্পের নাম,,: 🖤ভালোবাসার রোমান্টিক ঝগড়া 🖤

মেয়ে::---তুমি হঠাৎ আসো অনলাইনে, আবার

হঠাৎ চলে যাও। বলে যাও না কেন?

ছেলে::----আমি কি হজ করতে যাই নাকি?

এত বারবার বলার কি আছে?

মেয়ে::----উফ! অসহ্য!

ছেলে::----কি অসহ্য?

মেয়ে::----তোমার মাথা!

ছেলে::----অ

মেয়ে::---আবার অ? বলছি না ও বলবা?

ছেলে::----অ! সরি! ও।

মেয়ে::---তুমি সেদিন বাসের মধ্যে আমার

বান্ধবী ইরা কে কি বলছো?

ছেলে::---বলছি আমার ১০০০ টাকার নোট।

খুচরো নাই। ভাড়া দিয়ে দেন।

মেয়ে::----উফ! এটা না। ও নাকি ইঞ্জিনের

ওপর বসে ছিলো আর তুমি সামনের সিটে?

ছেলে::----হ্যাঁ। তারপর ইরা বলল ভাইয়া

আসেন অদলবদল করি। খুব গরম লাগছে ইঞ্জিনের

ওপর গদিটায়।

মেয়ে::----আর তুমি কি করলা?

ছেলে::----আমি আমার ব্যাগ থেকে পানির

বোতল বের করে দিলাম যাতে ইঞ্জিনের

ওপর সিটে ঢেলে দিয়ে তারপর বসে।

মেয়ে::----ওই! তুমি মানুষ হবা না? বাসের সব

মানুষ হেসে ফেলছে! ইরা মাইন্ড করছে খুব।

ছেলে::----মাইন্ড করলে আমার কি?

মেয়ে::---তোমার কি মানে? ও আমার

বান্ধবী।

আর তোমাকে না বলছিলাম ভাইয়ার সাথে

দেখা করতে।

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

ভাইয়া তোমাকে দেখবে বলেছে। দেখা

করেছো?

ছেলে::----আমি কি চিড়িয়াখানার জন্তু?

দেখার কি আছে?

মেয়ে::----উফ! আমি ভাইদের একমাত্র বোন।

তারা কি না দেখেই আমাকে বিয়ে দিবে?

ছেলে::----দেখবে না কেন? তারা কি অন্ধ

নাকি?

মেয়ে::----অসহ্য! তুমি তোমার বাবা মা কে

বলেছো আমার কথা?

ছেলে::----উনারা কানে শোনেন না!

মেয়ে::----সে কি! কবে থেকে?

ছেলে::----যেদিন আমাকে বাসায় বিয়ের

কথা বলতে বলছো সেদিন থেকে।

মেয়ে::----ওহ! খোদা! তুমি মানুষ হবা না?

ছেলে::----আমি কি অমানুষ নাকি?

মেয়ে::----উফ! তোমায় নিয়ে আর পারি না!

ছেলে::----আমার সাথে পেরে ওঠার এত শখ

কেন?

মেয়ে::----শখ না খায়েশ।

ছেলে::----কিসের খায়েশ?

মেয়ে::----তোমার চুলগুলো টেনে তোলার।

ছেলে::----তোমার সামনে এলে তো তুলবা!

মেয়ে::----কতদিন না এসে থাকবা?

ছেলে::----যতদিন তোমার বাপে যৌতুক

দিতে রাজি না হয়!

মেয়ে::----অই!

ছেলে::----কি?

মেয়ে::----তোমাকে কিন্তু চাবাইয়া

খেয়ে ফেলব যদি সামনে পাই!

ছেলে::----কয়দিন হলো ভাত খাও না?

মেয়ে::---- উফ!তোমার কি কিছুতেই

সিরিয়াসনেস নাই?

ছেলে::----আছে তো।

মেয়ে::----কিসে?

ছেলে::----অই যে কছিম মামার সাথে লুডু

খেলার সময়।

মেয়ে::----আমার অন্য জায়গায় বিয়ে হয়ে

গেলে বুঝবা!

কি করবা তখন? হু?

নতুন প্রেমের গল্প

ছেলে::----ভিক্ষুককে টাকা দিবো।

মেয়ে::----কেন?

ছেলে::----আমাকে চিবিয়ে চিবিয়ে

খেতে পারবা না তাই!

মেয়ে::---খোদা! পায়ে ধরি! মাফ চাই!

ভালোভাবে কথা বলো প্লিজ! প্লিজ!

ছেলে::---- আশে পাশে কেউ নাই তো। কার

সাথে বলবো?

মেয়ে::----আমার সাথে?

ছেলে::----তোমাকে তো ম্যাসেজ লিখি!

মেয়ে::----জান বলছি! প্লিজ এমন করে না।

ছেলে::----কেমন করি?

মেয়ে::----উফ! অসহ্য! আমার মাথা! মুণ্ডু! মুড়ি

খাও তুমি বসে বসে!

ছেলে::----তুমি ভেজে দিও তাহলে।

বয়ামে ভরে রাখবনি।

মেয়ে::----শয়তান! তোকে যদি সামনে

পাইতাম...!

আচ্ছা বাবু আসো আজ বিকেলে দেখা করি

একটু?

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

🤚🤚

ছেলে::----নাহ!

মেয়ে::----কেন?

ছেলে::----তুমি মাইর দিবা!

মেয়ে::----নাহ। দিব না। দরকার আছে একটু

প্লিজ?

ছেলে::----আমার সময় নাই বিকেলে।

মেয়ে::----কেন কি করবা?

ছেলে::----ওই তো আমাদের বাড়িওয়ালার

মেয়ে নাবিলা, যে আমাকে ওয়াইফাই এর

পাসওয়ার্ড দিয়েছিলো ওকে নিয়ে ঘুরতে

যাব একটু ধানমন্ডি লেকে।

মেয়ে::----অই! আমি কিন্তু তোকে খুন করে

ফেলব!

ছেলে::----তাহলে আমার নাবিলার কি

হবে?

মেয়ে::----তোর নাবিলা মানে?

ছেলে::----আমার আম্মার তো নাবিলাকেই

পছন্দ।

সুন্দর প্রেম কাহিনি

আম্মাকে ছবি দেখিয়েছিলাম নাবিলার।

আম্মা বলল, কি মিষ্টি মেয়ে!

মেয়ে::----তোকে এমন মিষ্টি খাওয়াবো!

বাকি জনমে আর মিষ্টি মিষ্টি করবি না!

ছেলে::---- শোনো রূপা! এত কথার দরকার

নাই। তোমার সাথে ব্রেক আপ আমার এখন! এই

মুহুর্ত থেকে।

মেয়ে::---- কী!

ছেলে::---- হ্যাঁ।

মেয়ে::----ঠিক আছে। তোর কাছে আমার যা

যা আছে সব দিয়ে দে।

ছেলে::----আমার কাছে তোমার কিছুই নাই।

মেয়ে::----কিছুই নাই মানে?

 

কত কিছু আছে!

আর তাছাড়া গত সপ্তাহেও আমি তোকে টি

শার্ট কিনে দিয়েছি একটা।

ছেলে::---ওটা দিয়ে আমাদের বুয়া ঘর মুছে

এখন। দেখবা?

ছবি পাঠাবো?

মেয়ে::---কী! ঠিক আছে! তুই যে গত মাসে

আমাকে রেস্টুরেন্টে শাড়ী দিলি ওটা

ফেরত নিয়ে যা।

নাহলে আমি পুড়িয়ে ফেলব এখনি।

ছেলে::----আমার কাছে ১০০০ টাকার নোট।

রিকশা ভাড়া দেয়ার জন্য খুচরা টাকা নাই।

তুমি এসে ফেরত দিয়ে যাও।

■》》》》》

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

শেষ বিকেলে কলিং বেল বাজতেই দরজা

খুলে দিলাম। দেখি রূপা দাঁড়িয়ে আছে,

হাতে একটা প্যাকেট।

মেয়েটা যে এক দুপুর ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে

কেঁদেছে, সন্দেহ নেই। চোখমুখ ফুলে আছে।

মেয়েটা এত পাগল!

বললাম,

ছেলে::---তোমার হাতে কি?

মেয়ে::---শাড়ি।

ছেলে::----ড্রাই ওয়াশ করে এনেছো তো?

মেয়ে::----মানে?

ছেলে::---নাবিলাকে তো এটাই দিব

আবার।

মেয়ে::----বদমাইশ!

ছেলে::---অ! রুমে এসে বসো। আমি গুছিয়ে

দিচ্ছি আমার কাছে তোমার যা যা আছে।

■》》》》》

রূপা আমার বিছানায় বসে আছে।

কাছে গিয়ে বললাম, তোমার হাতটা দেখি

একটু?

মেয়ে::----কেন?

ছেলে::---দরকার আছে।

■》》》

আমি রূপার ডান হাতের অনামিকায় আংটি

পড়িয়ে দিলাম।

মেয়ে::---ওমা! তুমি আমাকে রিং

পড়াচ্ছো কেন?

ছেলে::----কি যেনো কথা ছিল?

মেয়ে::---কথা ছিল তুমি চাকুরী পেলে

আমাকে একটা লাল শাড়ী কিনে দিবা আর

প্রথম মাসে বেতন পেলে একটা স্বর্ণের

আংটি।

ছেলে::---হু, তাই তো দিলাম।

মেয়ে::---অসভ্য, ফাজিল! তাহলে এসব কি

ছিল?

ছেলে::---ভালোবাসা।

মেয়ে::----শয়তান একটা! ভীষণ পাজি তুমি!

■》》..

রূপা হাসে, রূপা কাঁদে, রূপা রাগে

রূপার চোখ অভিমানে জলে ভিজে

আমার এত বেশি ভালো লাগে! যা বলে বোঝানো যাবে না.....

আমিও এই রকম একটা gf খুজতে ছি 🤣🤣🤣...

...গল্প টা কেমন লাগলো জানাবেন.....

❤️❤️বাস্তবে এমন জীবন সঙ্গিনী পাওয়া খুব কঠিন❤️❤️

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

বোনের বান্ধবীর সাথে রোমান্টিক প্রেমের গল্প

প্রেম কাহিনি

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

এই যে মিস্টার শুনছেন...

(কয়েকটা মেয়ের মধ্যে একজন বললো)

-- জি আমাকে বলছেন।

-- এখানে তো আপনি ছাড়া আর কেউ নেই।

( আসে-পাশে দেখলাম সত্যি কেউ নেই)

-- হুম বলুন কি ভাবে সাহায্য করতে পারি।

-- এত ভাব নিতে হবে না, এখানে তিশাদের বাসাটা কোথায় বললে খুশি হইতাম।

(একটি মেয়ে কথাটা বললো, মেয়েটা দেখতে অনেক কিউট কিন্তু একটু বদরাগী মনে হচ্ছে। এসব ভাবছি আর ওর দিকে তাকিয়ে আছি। আসলে মেয়েটার রাগি চেহারা দেখা ক্রাস খাইছি রে ভাই। মেয়েদের রাগলে যে এতো কিউট লাগে ওকে না দেখলে হইতো বুঝতামি না।)

 

-- এই যে এমন ডেব ডেব করে কি দেখছেন? মেয়ে মানুষ জিবনে দেখেন নাই নাকি।

-- না মানে আসলে.....

-- হইছে আর ঢং করতে হবে না, আপনাদের মতো ছেলেদের আমার জানা আছে। সুন্দরী মেয়ে দেখলে জিভে পানি আসে,যতসব।

-- শুনুন, আপনি যা ভাবছেন আমি তেমন ছেলে নই। আর নিজেকে যতটা সুন্দর ভাবছেন আপনি ততটা সুন্দর না।

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

-- কি আমি সুন্দর না? তবে আমার দিকে এমন তাকিয়ে ছিলি কেন?

-- আরে আপনি তুইতুকারি করছেন কেনো?

-- এর থেকে নিচে কোনো ভাষা থাকলে তাই বলতাম। শোন আমরা শহরের মেয়ে তোর মত কত বানররে মানুষ বানালাম।

-- আপনি তো দেখি বড়ো বেয়াদব মেয়ে। দেখে তো মনে হচ্ছে আমার ছোট আপনি। মানুষ কে সম্মান করতে জানেন না?

-- ওই ফাজিল পোলা তোরে কি সম্মান করবো হ্যাঁ, তোরে দেখে তো একটা ফহিন্নি মনে হচ্ছে।

 

-- এবার কিন্তু বেশি হয়ে যাচ্ছে, ভালো হবে না বলে দিলাম।

-- ওই ওই তুই কি করবি আমার। চিনিস আমাকে Just একটা ফোন করবো তোর গুষ্টি সুদ্ধা বাইন্দা নিয়ে যাবে পুলিশ।

অনেক রাগ হচ্ছে, মনে হচ্ছে ঠাস করে একটা চর মারি। (কেউ একজন বলেছিলেন, মেয়েদের মন জয় করতে হলে আগে তার রূপের প্রশংসা করো। কিন্তু আমি উল্টো করেছি তাই এতটা রাগ)

বাংলা প্রেমের গল্প

প্রথমে ভেবছিলাম মেয়েটা একটু রাগি কিন্তু এতো পুরা ধানিলঙ্কা। তাই আর কথা না বাড়িয়ে চলে আসলাম। হাজার হোক আমাদের এলাকার গেস্ট। বাড়ির পথে যেতে লাগলাম। বার বার মেয়েটার রাগি চেহারা টা চোখের সামনে ভাসতে লাগলো,কত সুন্দর মেয়েটা,চোখ দুটো যেন প্রজাপতির মতো,মনে হয় ওর চোখের দিকে তাকিয়েই আমি কয়েক যুগ কাটিয়ে দিতে পারবো। 

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

আর ওর রাগি লুক ওই রাগি চাহনি উফফ ভাবা যায় না। পৃথিবীর সব সুন্দর্য যেনো সৃষ্টি কর্তা ওর মাঝে দিয়েছেন। সব ঠিক আছে কিন্তু রাগটা একটু বেশি। ওর রাগি কন্ঠ মনে হয় কত্ত মিষ্টি, আর এমন একটা সুন্দর মেয়ের রাগ হওয়াটা স্বাভাবিক ( কি বলেন আপনারা ) তবে ওকে রাগ করার জন্য বেশি কিউট লাগে। অনেক ভয় ভয় করে বাড়ির দিকে যাচ্ছি। ঐ দিকে.....

 

তিশা - আরে এসে গেছিস তোরা, আস্তে কোনো problem হইনি তো?

-- আর বলিস না, একটা শয়তান ছেলের পাল্লাই পড়ে ছিলাম (ঐ রাগি মেয়েটা)

তিশা -- কি বলছিস, তোদের কিছু বলেনি তো?

-- আরে সেই সাহস আছে নাকি, আমাকে তো চিনিস তাই না? বরং আমি ওকে শায়েস্তা করেছি।

 

তিশা -- হিহিহি তাই নাকি...!!

-- হুম, but ঐ ছেলেটার জন্য একটু খারাপ লাগছে।

তিশা -- কেনো খারাপ লাগছে কেনো?

-- আসলে রাগের মাথায় অনেক বাজে কথা বলেছি ওকে। আসলে ছেলেটা এতো খারাপ না।

 

তিশা -- হুম বুঝলাম, এখন আয় পড়ে দেখা হলে sorry বলে নিস বেশ।

-- হুম but দেখা পাবতো.....

তিশা -- কেনো পাবিনা, এই গ্রামে যদি থাকে অবশ্যই দেখা পাবি। আর আমার ভাইয়া কে বললেই খুঁজে বের করবে।

 

-- হুম, তো কথাই তোর ভাই তোর ভাইকে দেখতেই তো আসলাম। খুব তো বলিস তোর ভাইয়া নাকি অনেক সুন্দর।

তিশা -- হুম, আসলেই দেখতে পাবি। কিন্তু আমার না খুব ভয় করছে রে.....

-- কেনো তোর ভাই কি হনুমান নাকি...!!

 

তিশা -- না বলছি তুই যদি আমার ভায়ের প্রেমে পড়ে যাস তাই।

-- কেনো তাতে তোর কোনো problem আছে নাকি?

তিশা -- না না তুই আমার ভাবী হলে তো অনেক মজাই হবে।

আচ্ছা অনেক ছেলে তো তোর পিছনে ঘুরে, অনেকে আবার প্রপোজ করেছে তবুও প্রেম করিস না কেন?

 

-- আমার কি দোষ, আমিও তো প্রেম করতে চাই। কাউকে নিয়ে হারিয়ে যেতে চাই অজানা দিগন্তে, সেখানে থাকবো শুধু আমরা দুজন। কিন্তু মনের মত তো কাউকে পাইনা...!!

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

তিশা -- হুম বুঝলাম, তা মহারানী আপনার কেমন ছেলে দরকার, দেখি খুঁজে পাই কিনা।

-- যাকে আমি ভালোবাসবো প্রথমত একটা সহজ সরল ছেলে হতে হবে। একটু বোকা হলেও চলবে আমি মানিয়ে নিবো।

 

তিশা -- হুম, তার পর....!!

-- আমি হাজার বার রাগ করলেও সে রাগ না করে বরং আমার রাগ ভাঙ্গাবার জন্য হাজারটা মিথ্যা গল্প বলবে শুধু আমার রাগ কমানোর জন্য।

তিশা -- হুম..!!

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

-- আর আমায় অনেক ভালোবাসবে। তবে আমিও ওকে অনেক অনেক ভালোবাসবো।

তিশা -- এমন একটা হাদারাম কোথায় পাবো...!!

-- আমাকে ভালবাসার জন্য নিশ্চয় কেউ আছে, যার ভালোবাসাই আমি সব দুঃখ কষ্ট ভুলতে পারবো।

তিশা -- হুম দোয়া করি আল্লাহ যেন তাড়াতাড়ি সেই মহান মানুষকে তোর কাছে পাঠাই।

এর মাঝে আমি এন্ট্রি নিলাম। আমাকে দেখে তো মেয়েটা বললো,

-- আরে কি ব্যাপার আপনি এখানে? আমাদের ফলো করতে করতে এখানে চলে এসেছেন?

 

তিশা -- কি বলিস তোদের ফ্লো করে আসবে কেনো, ও তো আমার ভাইয়া "নিরব"

আমি তিশার ভাইয়া শুনে সবাই মাথা নিচু করেছে, আবার তিশা বললো,

তিশা -- ভাইয়া এরা হচ্ছে আমার বান্ধবী -- নেহা,সাদিয়া,জুই আর লিমা। আর আমি তোদের যে ভাইয়ার কথা বলে ছিলাম এ আমার সেই ভাইয়া।

 

তার মানে মেয়েটার নাম নেহা, মেয়েটা যেমন সুন্দর ওর নামটাও তেমনি। এরপর আমি ওদের সাথে একটু হাই হালো করে আমার রুমে চলে আসলাম। হাজার হোক ছোট বোনের বান্ধবী...........!!!

আরো চলবে.........(to be continue)

প্রিয় বন্ধু গণ,

 

✴️আমার পরবর্তী পোস্ট গুলো সবার আগে পেতে অবশ্যই কমেন্ট,লাইক,সেয়ার করবেন।আমি আরো ভালো কিছু দেওয়ার চেষ্টা করবো "ধন্যবাদ" ✴

প্রেমের গল্প

অভিমানী!

বিয়ের অনুষ্ঠানে এক একা বসে আছে লিমা। প্রচন্ড বিরক্ত হচ্ছে সে। বিরক্ত লাগছে তার অনেক বেশি। আগেই জানতো এখানে এসে একা থাকতে হবে, তাই আসতেই চায়নি সে। কিন্তু মায়ের পিড়াপীড়িতে আসতে বাধ্য হয়েছে। কোন কাজ না পেয়ে ফেসবুকে লগইন করলো। করেই দেখে অনলাইনে রাকিব, লিমার বয়ফ্রেন্ড !

 

- কি করো, জান ? ( লিমাকে অনলাইনে দেখামাত্রই রাকিবের মেসেজ )

- কিছু না। মেজাজ খারাপ এখন।

- হইছে টা কি ?

- কথা বলবা না।

- ওকে।

- ওকে মানে কি ?

- তুমিই তো বললা কথা বলতে না।

- তাই বলে আমার সাথে কথা বলবা না ?

- আরেহ আশ্চর্য তুমিই তো বললা !

- ও বুঝছি তুমি তো এখন মেয়েদের সাথে চ্যাটিং-এ ব্যস্ত। করো করো যত ইচ্ছা চ্যাট করো।

- আজব তো। হু করতেছি আমি চ্যাট। তোমার কি তাতে ?

- কি ??????????

- জানো আমি এখন ১০ জন মেয়ের সাথে চ্যাট করতেছি !

প্রচন্ড রাগে ফেসবুক থেকে বের হয়ে যায় লিমা !

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

ইচ্ছা করেই রাকিব কাজটা করে। লিমাকে রাগিয়ে দেয় সে। আর লিমাও একটু আহ্লাদী মেয়ে, মন মত কিছু না হলেও হয়েছে, প্রচন্ড রেগে যায় সে। বরাবরের মতই এখন রাগে ফুঁসছে সে। ফর্সা, গোলগাল চেহারাটা রক্ত বর্ণ ধারণ করেছে। একটু পরেই আবার ফেসবুকে গেলো। গিয়ে নিজের আইডি থেকে লগআউট করে রাকিবের আইডিতে গেলো। গিয়ে দেখে কিসের কি ! সে বাদে সর্বশেষ মেসেজিং করেছে তার বন্ধুদের সাথে। কোন মেয়ের সাথেই তার চ্যাটিং হয়নি। 

 Bangla Premer Golpo

তারমানে মিথ্যা বলেছে সে ! আরেকদফা রেগে গেলো লিমা। আবার নিজের আইডিতে গিয়ে রাকিবকে মেসেজ দিলো, " আমার সাথে মিথ্যা কথা বললা কেন ? "

- তারমানে তুমি আমার আইডিতে লগইন করেছিলে ? ছি ছি ! না বলে অন্যের আইডিতে যাও, লজ্জা নাই তোমার ?

- কি ????????????

- এত কি কি করো কেন ?

- তোমার সাথে কথা নাই।

- আরেহ আজব !

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

রিপ্লাই দেয় না লিমা। রেগে মেগে ফেসবুক থেকে বের হয়ে গেছে সে। একটু পরে আবার লগইন করে দেখে একটা লাভ স্টোরি দিয়েছে রাকিব, নায়ক যথারীতি আর্মি অফিসার !

- আচ্ছা তুমি এত আর্মি আর্মি করো কেন গল্পে ?

 

- এনি প্রব্লেম ?

- মানে কি ?

- মানে হচ্ছে আমার গল্পের প্লটের সাথে আর্মি অফিসারেরা বেশি খাপ খায়, তাই ওভাবে দেই। আমি ওভাবে কল্পনা করে লিখতে পছন্দ করি।

- না তুমি এভাবে বলো নাই !

- মানে ?

- তুমি প্রথমে অন্যভাবে বলেছ।

- আরেহ আজব।

- কি আজব ?

- তুমি ! নারায়ণগঞ্জের মেয়ে তো, একটু বেশি সন্দেহপ্রবণ ! সবসময় একটু বেশি বুঝে !

- তোমার সাথে কথা নাই।

- উফফ !! কিছু হইলেই খালি কথা নাই, কথা নাই বলে গান শুরু করে দিবে মেয়েটা !

- তুমি মুড়ি খাও।

- তুমি বিয়েতে গেছো না ?

- হুম।

- তাইলে তুমি ভালো করে মোরগ-পোলাও খাও ! তাইলে যদি মাথায় একটু বুদ্ধি হয় !

মেসেজ দেখে আবার রেগে গেলো লিমা। এবার আর কথাই নাই। সোজা আইডি ডি-অ্যাক্টিভ করে বের হয়ে গেলো।

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

পরদিন বিকালে পার্কে বসে আছে রাকিব। গতরাতে লিমাকে প্রচন্ড রাগিয়ে দিয়েছে সে ! যে কারণে মেয়েটা প্রথম প্রথম তার ফোনও ধরনি।

 

মোবাইলের মেসেজে অনবরত সরি বলার বলার পরে একবার ফোন ধরেছিল। ফোনেও অনেকবার সরি বলেছে, লিমা কোন কথা বলেনি। তাই তাকে বিকালে এখানে আসতে বলেছে। যতই কথা না বলুক রাকিব জানে লিমা না এসে পারবে না। যথা সময়েই লিমা এসে হাজির। রাকিবকে দেখেই, " তোমার সাথে কোন কথা নাই। " মুচকি হাসে রাকিব। রাগলে লিমাকে দেখতে বেশি সুন্দর লাগে। তাই ইচ্ছা করেই সে তাকে রাগায়। আর সে ভালো করেই।জানে লিমার রাগ কি করে ভাঙ্গাতে হয় !

 

পকেট থেকে কিটক্যাটের একটা বড় প্যাকেট বের করে বললো, " ভেবেছিলাম তোমাকে দিবো কিন্তু এখন এটা দেওয়ার জন্য মনে হয় অন্য একজন মেয়ে খুঁজতে হবে !

" কি ? " চোখে পাকিয়ে বলে লিমা। " এটা আমার জন্য আনোনি ?

- এনেছিলাম তোমার জন্যই। কিন্তু তুমি তো নিতে চাও না ...

- ফাজিল।

 

আর রাগ ধরে রাখতে পারলো না লিমা। হেসে ফেললো সে। তার মধ্যে এখনো বাচ্চাদের মত চকলেটপ্রীতি কাজ করে। আর সেটা জানে রাকিব। লিমার রাগ ভাঙ্গাতে সে তাই চকলেটের ব্যবহারই করে !

 

এভাবেই তাদের খুনসুটির সমাপ্তি ঘটে যেটা গত দুই বছর ধরে প্রতিনিয়ত চলে আসছে !

পার্কে বসে রাকিবের কাঁধে মাথা রেখে চকলেট খাচ্ছে লিমা !

 

আর দুজনে নীরবে উপভোগ করছে পড়ন্ত বিকেলের আশ্চর্য সুন্দর, মায়াবী পরিবেশটা !

দুজন প্রেমিক-প্রেমিকার এ দৃশ্যটা আশ্চর্য সুন্দর, সমস্ত সৌন্দর্যকে যেন হার মানিয়ে যায় ! অসাধারণ সুন্দর আর মায়াবী পড়ন্ত বিকেলও এ দৃশ্য দেখে যেন হিংসায় মরে যায় !

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

অনুভবে ভালোবাসা!

(২) ভার্সিটির লাইব্রেরী রুম।গুড়ি গুড়ি কথার আওয়াজ হচ্ছে চারপাশে।পরিমিত মাত্রায় এসি চলছে।তবু বেশ শীত শীত লাগছে রাহাতের।লাইব্রেরীগুলোতে আজকাল পড়ালেখার চেয়ে আড্ডা হয় বেশি।তবু কেউ কেউ পড়তে আসে।যেমন এসেছে মেয়েটি।রোজ পূর্ব দিকের কোনার সিটটাতে বসে ও।হাতের কাছে থাকে রাজ্যের বই।

 

এই মেয়ের চোখে মুখে পড়ুয়া আঁতেলের কোন ছাপ নেই।তবু মেয়েটা বেশ পড়ুয়া জানে রাহাত।গত তিন মাস ধরেই মেয়েটাকে লক্ষ্য করছে সে।ক্লাস শেষের পর ও লাইব্রেরীতে এসে বসে থাকে।মাঝে মধ্যে এক দুইটা বই নেয়।সেগুলো আর পড়া হয় না ওর।ঘুরিয়ে ফিরিয়ে অগোচরে মেয়েটাকেই দেখে।ওকেই ভাবে।মেয়েটা চশমা পরে।এই মেয়ের পরার দরকার ছিল গোল চশমা।মাথার চুলগুলো থাকবে দুই বেণী করা।

 

তাহলে পড়ুয়া স্বভাবের সাথে মানাতো।তবু ব্যাংস করে কাটা চুল,ফুল ফ্রেমের চারকোনা চশমা সবই অদ্ভুত সুন্দর ভাবে মানিয়ে গেছে ওর সাথে।নোট তোলার সময় তিন রঙের কলম নিয়ে বসে মেয়েটা।একে দেখলেই পড়ালেখার একটা লিলুয়া ইচ্ছা জাগে রাহাতের।আপাতত মেয়েটার হাতে ডাইন্যামিক সার্কিট নেটওয়ার্কিং এর একটা বই।তার মানে আর কিছুক্ষণ বাদেই চলে যাবে মেয়েটা।

 

বিষয়টাতে ওর খুব আগ্রহ আছে বোধহয়।প্রতিদিনই যাওয়ার আগে মিনিট বিশেক এই বিষয়ের বই পড়ে ও।ঘড়ির কাটা এত দ্রুত চলে কেন!ভাবতে ভাবতে দীর্ঘশ্বাস ছাড়ে রাহাত।তবু ও জানে ওর করার কিছু নেই।এসব মেয়েদের ভালো বন্ধু হওয়া যায়,নোট শেয়ার করা যায়।কিন্তু প্রেমের প্রস্তাব দেয়া যায় না।

 

পড়ুয়া মেয়েদের সম্পর্কে প্রথম ধারণা হয় ক্লাস নাইন এ থাকতে।রাহাতের বন্ধু ইমন পছন্দ করত স্কুলের সেকেন্ড গার্ল কে।কিন্তু বলার সাহস করতে পারত না।শেষমেষ রাহাতের কাঁধে দেয়া হয় কথা বলার দায়িত্বটা।সেদিন ছিল ফিজিক্স পরীক্ষা।জঘন্য রকমের একটা পরীক্ষা শেষে ও আর ইমন অপেক্ষা করছিল মেয়েটার জন্য।নিতুকে আসতে দেখে এগিয়ে যায় রাহাত।

 

-এক্সকিউজ মি

-আমাকে বলছেন?

-জী।তোমার সাথে একটু কথা বলতে চাচ্ছি।

-কি কথা বলবেন তা তো জানিই।পরীক্ষার সময় এসব চিন্তা ভাবনার সময় পান কোত্থেকে?আজকের প্রশ্নটা কি কঠিন হয়েছে দেখেছেন?সেসব দেখবেন কেন।সেসব দেখলে তো এরকম আজাইরা কাজ করতে পারবেনা না।কি বলার আছে বলেন দেখি।

এত গুলো কথা শুনে আর বলার কিছু পায়না রাহাত।চলে যাবার সময় মেয়েটা আবার ডেকে বলে,"খুব তো খুশি মনে এসেছিলেন কথা বলতে।ফিজিক্সে কত পেলেন খাতা পাওয়ার পর জানাতে আইসেন।"

 

সেবারের পরীক্ষায় রাহাত পায় ৪৩।এই নাম্বার নিয়ে কোন মেয়ের সামনাসামনি হওয়া যায় না।এর পরের বছর অবশ্য ফিজিক্স অলিম্পিয়াডে পুরস্কার পায় রাহাত।তবু ভালোর উপর খারাপ ধারণা যতটা সহজে স্থান পায় খারাপ ধারণা মুছে ভালোর জায়গা ততো সহজে হয়না।

 

লাইব্রেরী থেকে বেরিয়ে নিচে দাঁড়াল রাহাত।এই মুহূর্তটায় নিজেকে খুব অসহায় লাগে রাহাতের।প্রেম ব্যাপারটা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে।একটা প্রক্রিয়ার মাঝে দিয়ে তা ভালোবাসায় রূপ নেয়।রাহাত জানে সে এখন সেই প্রক্রিয়ার মাঝে দিয়েই যাচ্ছে।নিজেকে খুব করে আটকানোর চেষ্টা করে রাহাত।নিজের অনুভূতিগুলোতে বাঁধ দিয়ে রাখার এক ব্যর্থ চেষ্টা।মধ্যবিত্ত সাধারণ ছেলেগুলোর জীবনে প্রেম ভালোবাসার মত অসহায়ত্বের বিষয় আর নাই।

 

এদের কাউকে ভালো লাগতে নেই,কারো ভালো লাগার কারণ ও হতে নেই।সব ক্ষেত্রেই বুকে বিঁধে থাকা কাঁটার মত চিন চিনে ব্যথাটা নিয়ে এগিয়ে যেতে হয়।অনুভূতিগুলোকে পাশ কাটিয়ে,না দেখার ভণিতা করে।

 

ঝির ঝির করে বৃষ্টি পড়ছে।এ বৃষ্টি কখন থামবে কে জানে।সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসছে।ক্ষণিক বাদেই নিচে নেমে এলো মেয়েটা।রাহাতের পাশে দাঁড়াতেই একধরনের ঘোরের মধ্যে চলে গেলো ও।প্রতিবারই এ ব্যাপারটা ঘটে ওর সাথে।নামের সাথে খুব কম মানুষের মিল থাকে।এ মেয়েটার ক্ষেত্রে ব্যাপারটা ভিন্ন।মেয়েটার নাম পুষ্পিতা।

 

মেয়েটা আশেপাশে থাকলেই একধরনের সুবাস পাওয়া যায়।চন্দ্রগ্রস্থ রাতে হাসনাহেনার তীব্র নেশা ধরানো সুবাস।এটা সত্যি নাকি মিথ্যা জানেনা রাহাত।আজ হঠাৎই ঘোরের মাঝে ধাক্কা খেয়ে উঠে মেয়েটির কথা শুনে

-আজকের ওয়েদারটা খুব সুন্দর না?

 

-জী?আমাকে বলছেন?

-আপনি ছাড়া কেউ আছে নাকি এখানে?

-রাহাত অনুভব করছে হঠাৎ করেই হৃদস্পন্দনটা বেড়ে গেছে।তবু নিজেকে যথেষ্ট স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করে বলল তা অবশ্য ঠিক।হ্যাঁ খুব সুন্দর লাগছে ওয়েদারটা।

-আপনার বৃষ্টি ভালো লাগে?

-অতটা খারাপ ও লাগে না।

-বৃষ্টিতে ভিজেছেন কখনো?

-না।

 

-ওমা!সেকি!বৃষ্টিতে ভিজেননি কখনো?ফুটবল খেলেননি কখনো বৃষ্টিতে?

-না।খেলিনি।

-আচ্ছা আপনি এরকম গাব গাছ কেন?আমিই বক বক করছি।

-আসলে কি বলব বুঝতে পারছিনা।

-লাইব্রেরীতে যেয়ে যখন বসে থাকেন?কিংবা ক্যাম্পাসে যখন আমাকে দেখে থমকে দাঁড়ান?তখন বলতে ইচ্ছা করে কিছু?

 

-না মানে...

-শুনুন আমি আপনার মত গাধা না।একটা মেয়ে ঠিক বুঝতে পারে তার চারপাশে কি হচ্ছে।তবু তাকে চুপ করে থাকতে হয়।সব বিষয় নিয়ে মাতামাতি করার স্বাধীনতা একটা মেয়েকে দেয়া হয়নি।

-তুমি খুব গুছিয়ে কথা বল।

-তুমি?আপনি থেকে তুমি হয়ে গেলো?

-ও সরি।কিছু মনে করবেন না।

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

-সরি বলতে হবে না।সন্ধ্যা হয়ে গেছে প্রায়।বৃষ্টি থামার লক্ষণ নেই কোনো।আমার বাসায় যাওয়াটা বেশ দরকার এখন।দেরী হলে সমস্যায় পড়তে হবে।একটা রিক্সা ঠিক করে দিনতো।

 নতুন প্রেমের গল্প

-এখানে তো রিক্সা নেই।

-রিক্সা নেই তা আমিও দেখতে পাচ্ছি।সে জন্যই আপনাকে বলছি।

-আমি ছাতা আনিনি।

-আপনাকে বৃষ্টিতে ভিজেই যেতে বলছি।যাবেন নাকি গাবগাছের মত দাঁড়িয়ে থাকবেন?

-আচ্ছা যাচ্ছি।

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

বৃষ্টিতে ভিজেই মেয়েটাকে রিক্সা ঠিক করে দিলো রাহাত।অন্যরকম ভালো লাগা কাজ করছে ওর মাঝে।রিক্সা চলতে শুরু করেছে।রিক্সার চাকার গতিতে পিচঢালা পথে বৃষ্টির পানি ছিটকে পড়ছে।রাহাত তাকিয়ে আছে সেদিকে।একটু যেতেই রিক্সা থামিয়ে পেছন ফিরে তাকালো মেয়েটা।"আর বৃষ্টিতে ভিজে কাজ নেই চলে আসুন।

 

আপনাকে সামনে নামিয়ে দিব।"রাহাত সামনে এগিয়ে যাচ্ছে।খুব অল্প একটু দূরত্ব।তবু সে চায়না পথটা শেষ হয়ে যাক।অনুভবের মাঝে এ ভালোলাগা নিয়ে অনন্তকাল চলতে চায় সে।মেয়েটার মুখেও এক স্মিত হাসি।এই হাসির অনুভূতি বড়ই আনন্দের।

 

বৃষ্টির আগে আকাশে মেঘ জমে।ভালোবাসার ক্ষেত্রে জমে অনুভূতি।সে অনুভূতি খেলা করে অনুভবের মাঝে।মুখে প্রকাশ না পেলেও অনুভবের মাঝে সে বেড়ে চলে।বেড়ে চলে অপেক্ষার কোনো পথচলা হয়ে,আনন্দের কোনো স্মিত হাসি হয়ে।

রোমান্টিক প্রেমের গল্প

 

ভালোলাগা ভালোবাসা!

(৩) কলেজের প্রথম বছর ছিল… পরিচয় হল… বন্ধুত্ব হলো… ভাল লাগলো… তারপর প্রেম নিবেদন… তারপর শুধুই ভালবাসা| নাহ্! এত নিরামিষ ছিল না আমাদের গল্প| এত নিরামিষ হলে হয়তো এভাবে সাতটা বছর পার করে দিতে পারতাম না দুজনে|

সেই সাত বছর আগের কথা… 

 

কিছুদিন হলো কলেজে ভর্তি হয়েছি| হঠাৎ অপরিচিত কারো একটা ই-মেইল নজরে পরলো| খুব সহজ একটা ধাঁধা লেখা ছিল ই-মেইলে| সাথে একটা মোবাইল নাম্বারো ছিল, আর লেখা ছিল যদি ধাঁধার উত্তর জানা থাকে তাহলে যেন সেই নাম্বারে পাঠিয়ে দিই| ধাঁধার উত্তর লিখে পাঠিয়ে দিলাম আর জানতে চাইলাম তার পরিচয়, তবে ই- মেইলের উত্তর ই-মেইলেই…

 

মোবাইলে দিয়ে নিজের মোবাইল নাম্বারটা একটা অপরিচিত মানুষকে দিয়ে বিপদে পরবো নাকি!!?? কিছুদিন পর আবিষ্কার করলাম ছেলেটা আমার সেকশনেরই! কিন্তু কিছুতেই বুঝতে পারছিলাম না কে সেই শাখামৃগ যে আমাকে এত দুশ্চিন্তায় ফেলে দূরে বসে মজা নিচ্ছে!!?? পরে জানতে পারলাম যার দিকে কখোনো চোখই পরেনি, যার নামটাও কখোনো জানা হয়ে ওঠেনি ছেলেটা সেই… সানিয়াত… সানিয়াত মোহাম্মদ সারোয়ার হোসেন|

 Bangla Premer Golpo

বন্ধুত্ব হলো… খুব ভাল বন্ধুত্ব হলো… রাতে মোবাইলে কথা না বললে চলতোই না… ধীরে ধীরে কখোন যে বন্ধুত্বটা দুর্বলতা হয়ে গেল বুঝতেই পারলাম না! হয়তো নিজেকে বা ওকে বুঝতে দিতে চাইতাম না অনুভূতিটা| ভয় হতো… 

নতুন প্রেমের গল্প

যদি বন্ধুত্বটাই হারিয়ে ফেলি!? তবু মনের মাঝে কোন এক কোণায় হালকা ব্যথা অনুভূত হতো, যখোন ও ঐ সেকশনেরই সবচেয়ে সুন্দর মেয়েটার কথা বলতো| হালকা ব্যথা বললে বোধহয় ভুল হবে… আগুনের একটু আঁচ লাগলেই যেমন জ্বলা শুরু করে… আমারো তখোন ভেতরটা জ্বলতো! একটা কথা আছে না… “বুক ফাটে তাও মুখ ফোটেনা”… ঠিক ঐ রকম!

 রোমান্টিক প্রেমের গল্প

জানুয়ারী ২০০৫ থেকে ডিসেম্বর ২০০৫… আমাদের বন্ধুত্ব আরো গাড়ো হলো… আমাদের ছোট খাট পছন্দ অপছন্দ শেয়ার করা হলো| যদিও আমাদের ক্লাসমেটদের ধারণা আমরা তখোন থেকেই প্রেম করি| ধারণাটা আরো গাড়ো হয়েছিল যখন ও ক্লাসের একটা ছেলেকে আমাকে উত্তক্ত করার জন্য ঝাড়ি দিয়েছিল| 

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

ধারণাটা নি্শ্চিত সন্দেহের রূপ নেয় যখন আমি ওর হাতে কলেজের বেলকনিতে দাঁড়িয়ে একটা চিঠি ধরিয়ে দিই|

 

চিঠিতে কি লিখেছিলাম মনে নেই, তবে সেটা কোনো প্রেমপত্র ছিল না এটা নিশ্চিত… সেটা ছিল ওর ওপর আমার অভিমানের বহিঃপ্র্রকাশ মাত্র| ও আমাকে এখন প্রায়ই বলে চিঠিতে নাকি অসংখ্য বার আমি লিখছলাম “আমি তোমার খুব ভাল Friend হিসেবে বলছি…”| সেদিন বৃষ্টি হচ্ছিলো... চিঠিটা ওর পকেটে ছিল... বৃষ্টিতে আমার চিঠিটা নাকি ভিজে একাকার|তার কিছুদিন পর আমি আমার ২য় বর্ষে কলেজ বদলিয়ে ফেললাম| ফিরে গেলাম আমার স্কুলেরই কলেজ শাখায়|

 

তারপর আমার মোবাইল হারিয়ে গেল… সাথে ওর নাম্বারটাও| সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন যোগাযোগ| মাঝেমাঝে ই-মেইল Check করতাম… যদি ও কিছু পাঠায়… কিন্তু দীর্ঘশ্বাস ছাড়া কিছুই পেতাম না| নিজেকে সান্তনা দিতাম… এই বুঝি ভাল হলো… Out of sight, out of mind!

 

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

পর্ব : ২

জানুয়ারী ২০০৬ থেকে ২০০৬ ডিসেম্বর… এর মাঝে অনেক উত্থান পতন হয়েছে দুজনেরই… এসেছে কিছু পরিবর্তন… ৪ বছর বয়স বেড়েছে… কলেজ শেষ হয়েছে… ২০০৭ এর জানুয়ারী থেকে আমি মেডিকেল ছাত্রী হয়েছি আর ও হয়েছে ইঞ্জিনীয়ার ছাত্র| তখনো মাঝেমাঝে ই-মেইলCheck করতাম… হঠাৎ ২৯ জানুয়ারী ২০০৭ একটা ই-মেইল নজরে পরলো… from Md. Sarwer Hossain| আমি বিশ্বাস করতে পারছিলাম না| ই-মেইলটা ওর নতুন Address থেকে পাঠিয়েছিল ওর Contact list এর সবাইকে| আমি আর সবাই এক হলাম!? এই ভেবে আর Reply করা হলোনা|

 

তারপর ২১ ফেব্রুয়ারী ২০০৭ আরেকটা ই-মেইল এলো| ই-মেইল পড়ে প্রথমে খুব রাগ হলো… কারণ as usual সেখানে আমাকে Jealous করানোর মত কথা লেখা ছিল| ই-মেইলের শেষ লাইন গুলো ছিল এরকম “SunSi dr ri porteSo khubi valo. amr amma Sune khub khuSi hoiSe. kau dr hoiSe Sunle amma khuSi hoya jay, amder aaSe paSe Sob to enginr tai. ajk to monehoy tmr bondo. ok valo thako.... bye… connection raikho amak vuila gaSo ? ? ! ? ! ! ! ?”

বাংলা প্রেমের গল্প

তখন কেন জানি আর রাগ করে থাকতে পারলাম না… reply একটা করেই দিলাম| তারপর আবার শুরু হলো যোগাযোগ| ও যেমন আমাকে প্রায়ই Jealous করানোর মত কথা বলতো আমিও ওকে সব সময় Jealous করার চেষ্টা করতাম… কিন্তু ওর কোনো প্রতিক্রীয়াই ছিলনা! খুব রাগ হতো আমার!

 

২০০৮ এর ১৩ ফেব্রুয়ারী… আমি ওকে “Yahoo!” তে Chat-এ বেশ ভয়ে ভয়ে জিজ্ঞেস করলাম, “আচ্ছা, তোমার কাল কি কোনো Programme আছে?” ও বললো, “নাহ্, কাল কি Programme থাকবে? কেন থাকবে?” আমি বললাম, “তাহলে আমরা কি কাল TSC-তে দেখা করতে পারি?” আমি ভেবেছিলাম ও “না” বলবে| কিন্তু ও বললো “হ্যাঁ”!! বলে আমার বিপদ বাড়িয়ে দিল|

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

প্রচন্ড রকমের ভয় ভর করলো মাথায়| এতই ভয় আর উত্তেজনা পেয়ে বসলো আমায় যে আমার হারিয়ে যাওয়া মোবাইলের সাথে যে ওর মোবাইল নাম্বারটাও যে হারিয়ে গিয়েছে সেটাও ভুলে গিয়েছিলাম| আর হঠাৎ করে ওর নাম্বারটাও কিছুতেই মনে পড়ছিল না| কিন্তু ততক্ষনে আমরা Sign out করে ফেলেছি| হঠাৎ মনে পরলো একটা ডায়রীতে ওর নাম্বার লিখে রেখেছিলাম, কিন্তু কোনো লাভ হলোনা…

 

ডায়রীটা খুঁজে পেলাম না| তাই ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০০৮ TSC যাওয়া হয়েছিল ঠিকই, কিন্তু বইমেলার মানুষের ভীরে আমরা দুজন দুজনকে খুঁজে পেলাম না| পরদিন “Yahoo!” তে ও আমাকে নাম্বার দিল… ঠিক হল ১৭ ফেব্রুয়ারী দেখা করবো| আবারো সেই ভয় আর উত্তেজনা পেয়ে বসলো আমায়|

 

১৭ ফেব্রুয়ারী ২০০৮… তখন আমি হোস্টেলে থাকতাম| TSC গেলাম… একমাস ব্যাপি বইমেলা… প্রচন্ড মানুষের ভীর| আমি পৌঁছেই ওকে ফোন দিলাম… ও কাছেই কোথাও ছিল… ৫ মিনিট অপেক্ষা করতে বললো| এই ৫ মিনিটে আমার ভয় ক্রমোশ বেরেই চললো| মাথায় কত চিন্তা ভর করলো! এই প্রথম আমি আর ও কোথাও এভাবে দেখা করতে যাচ্ছি… কতদিন পর দেখবো ওকে… ২ বছরের বেশি… ও কি পাল্টে গেছে… নাকি সেই আগের মতই আছে… ওকে চিনতে পারবো তো বা ও আমাকে চিনতে পারবে তো!?

 

এরকম কত ভয়…! তারপর অতি প্রতিক্ষীত ৫ মিনিট শেষ হলো… দূর থেকে দেখেই চিনতে পারলাম ওকে| নাহ্! খুব বেশি পাল্টায়নি ও… তবে একটু মোটা হয়েছে… মোটা বললেও ভুল হবে… স্বাস্থ্যটা একটু ভাল হয়েছে| ও কাছে এলো… আসার পর আমি কিছুতেই ওর দিকে তাকাতে পারছিলাম না| ভয় অথবা লজ্জা… কিছু একটা কাজ করছিল| লজ্জা পাচ্ছিলাম হয়তো লজ্জা নারীর ভূষণ বলে, আর ভয়… কারণ… ও যদি বুঝে ফেলে আমার দুর্বলতা! সন্ধ্যা ৭.৩০ টা পর্যন্ত ছিলাম ওর সাথে|

 রোমান্টিক প্রেমের গল্প

ও ওর স্বভাব সুলভ খুব নরমাল আচরণ করছিল, আর আমি খুব চেষ্টা করছিলাম নরমাল হওয়ার… কিন্তু ব্যর্থ চেষ্টা! ও আমাকে রিকশায় করে হোস্টেলে পৌঁছে দিয়ে গেল| হোস্টেলে ফেরার পর থেকে শুধু মনে হচ্ছিল ও কিছু বুঝলো না তো!!?? সত্যিই তাই… ও সেদিন বুঝে গিয়েছিল… কিন্তু ও আমাকে বুঝতেই দেয়নি যে ও বুঝতে পেরেছে

|

একদিন কথায় কথায় মনে পড়লো আমি ওকে কলেজে থাকতে জোড়া ডলফিনের একটা শো-পিস Gift করেছিলাম| লজ্জায় লাল হয়ে গেলাম… কি নির্লজ্জ মেয়েরে বাবা আমি! ও বললো ওটা নাকি তখনি ওর Friend দের বিশেষ কৌতুহলের কারণে দুই টুকরা হয়ে গিয়েছিল| সাথে সাথে আমার মনটাও দুই টুকরা হয়ে গেল| তারপর ও বললো সেটা নাকি ও আঠা দিয়ে জোড়া লাগিয়েছে… তখন থেকে সেটা ওর Aquarium এ শোভা পাচ্ছে|

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

এই কথা শোনার পর আমার মন তো জোড়া লাগলোই… মনে হলো কোথা থেকে যেন হালকা একটা হাওয়া স্বজোরে একটা দোলা দিয়ে গেল| মনে হলো… তাহলে কি ওর ও মাঝে দুর্বলতাটা কাজ করে!!?? তারপর থেকে আবার শুরু হলো আমার “Mission : Making Him Jealous”| এবার বোধহয় কাজ হলো…

 

৩০ জুন ২০০৮… নাহ্! ১ জুলাই ২০০৮… ৩০ জুন ২০০৮ রাত ১২টার পর… সকালেই আমারAnatomy Prof Written exam| ও আমাকে চমকে দিয়ে জিজ্ঞেস করলো, “অনু, তুমি কি কোনো কারণে আমার প্রতি Weak?” যার সত্যিকার অর্থে মানে ছিল, “অনু, তুমি কি আমাকে ভালবাসো?” আমি কি উত্তর দিবো ভেবে পাচ্ছিলাম… আমার কি বলা উচিত যে আমি শুরু থেকেই Weak!!??

 

আমি বললাম… “কি হবে জেনে? তোমার কাছে আমার সব Problem এর Solution আছে, কিন্তু এই উত্তরের কোনো Solution নেই”| ও বললো… “বলেই দেখো… থাকতেও তো পারে”| আমি বললাম… “হ্যাঁ, আছে তোমার কাছে কোনো Solution?” ও বললো… “এভাবেই চলতে থাকি… কপালে থাকলে হবে”| নিজেকে খুব ছোট মনে হলো… মনে হলো “হে ধরণী! তুমি দ্বিধা হও, আমি তোমার ভেতর প্রবেশ করি”!

 বাংলা প্রেমের গল্প

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

পর্ব : ৩

ভাবলাম এবার বুঝি বন্ধুত্বটাও হারালাম! ভাবলাম আমার ধারণা বোধহয় ভুল ছিল| কিন্তু না কিছুই শেষ হয়নি| ও খুব সহজেই যেকোনো ব্যপার সহজ করে ফেলতে পারে| আমরা আবার আমাদের চিরাচরিত Friendship-টাকেই ধরে রাখলাম|

 

২০ অগাস্ট ২০০৮… পরীক্ষা শেষে বাসায় আসলাম| ঐদিন রাতেও ১২টার পর ফোনে কথা হলো| হঠাৎ ও আমাকে বললো, “আচ্ছা অনু, ঐ যে ঐ টা একটু বলোতো”| আমি বললাম, “কি বলবো?” ও বললো, “ঐ যে তুমি যেটা Feel করো… ঐ যে কি যেন বলে না একজন আরেকজন কে”|

 

আমার বুঝতে বাকি রইলো না যে ও আমাকে দিয়ে কি বলাতে চায়! ওর মুখে আমার নামের উচ্চারণ শুনলেই তো আমার কাঁপাকাঁপি শুরু হয়ে যায়… আমি সেখানে একটা মেয়ে হয়ে কিভাবে ওকে এই কথাটা বলি!? আমি অনেক “না না” করলাম পর… অনেক ঢং করলাম …ও আমাকে বললো, “বলো না একটু শুনি, দেখি কেমন লাগে!?” 

 

সব লজ্জার ডোর ছিড়ে বলেই ফেললাম… “I love you”… এত speed এ বলেছিলাম যে নিজেই বুঝতে পারিনি যে ও বুঝলো কিনা! বলেই ওকে কিছু বলার সুযোগ না দিয়ে ফোন রেখে দিলাম| সেই রাত অনেক লম্বা ছিল… ঘুম-ই আসলোনা !

 

২৩ অগাস্ট ২০০৮… রাত ১২টার বেশি বাজে… অর্থাৎ ২৪ অগাস্ট ২০০৮… খুব ভয়ে ভয়ে লজ্জায় লজ্জায় ওর ফোন ধরলাম| আবারো ও শুনতে চাইলো… এবারো অনেক ঢং করার পর বললাম… এবার ও শুনতে চাইলো পর পর তিনবার… আমিও লজ্জা শরমের মাথা খেয়ে বলে দিলাম|

 

মনের ভেতরটায় অদ্ভূত একটা ব্যথা অনুভব করলাম এই মনে করে যে “তুমি কি একবারও বলবা না?” আমি যখন এই চিন্তায় মগ্ন তখন আচমকা কানে বেজে উঠলো ওর কণ্ঠস্বর… “অনু, তুমি আমাকে মারবা!”

 

জানিনা কোথ্থেকে এক ফোঁটা অশ্রু চোখের কোণে আশ্রয় নিল| ভাবলাম… তাহলে কি ফুরালো আমার তিন বছর ছয় মাসের অপেক্ষার প্রহর? আমি যখন আবারো ভাবনায় মগ্ন তখন আবার আচমকা কানে বেজে উঠলো ওর কণ্ঠস্বর… 

 

“ANU, I LOVE YOU”…………………………………… মনে হলো আমার কর্ণ কপাট ভেদ করে সুমধুর সুর প্রবেশ করলো| মনে হলো কেউ আমায় প্রেমের অমৃত সুধা গলধিকরণ করালো| আর সেই কেউ… আমার সানিয়াত মোহাম্মদ সারোয়ার হোসেন|

এখন ও আমাকে মাঝে মাঝে বলে, “তখনই (কলেজে পড়ার সময়) তোমার weakness টা সামনে আনতা, তাহলে আর এতদিন একা থাকতে হতো না… অবশ্য আমারই দোষ… আমি তখনই লাই দিলে তখনই এটা সামনে আসতো|” ওকে jealous feel করানোর কথা উঠলে বলে, “আমি তো জানতাম তুমি কি চাইতা... আর জানতাম বলেই jealous হতাম না আর তুমি আরো বেশি জ্বলতা… খুব মজা লাগতো!” ফাজিল কোথাকার!

 

তারপর কত ঝড় ঝাপটা গেল… দুজনের পরিবারে জানাজানি হলো| ওর মা-বাবা খুব সহজেই মেনে নিলেন| আর আমার মা-বাবা ছিলেন প্রচন্ড প্রেম বিরোধী ছিলেন| কিন্তু আমরা কোনোভাবেই হাল ছাড়িনি| আমরা জানতাম, আমার বাবা আমাকে প্রচন্ড ভালবাসেন… তাই তিনি অপরিচিত একজনের হাতে মেয়েকে তুলে দিতে ভয় পাচ্ছিলেন| মা-বাবা ওর সাথে দেখা করলেন… কথা বললেন… Impressed হলেন|

তারপর আর কি! তারপর…. এক সাথে পথ চলা… মাঝে মাঝে একটু একটু ভালবাসার ঝগড়া… তারচেয়েও অনেক অনেক বেশি… সবকিছুর ঊর্ধে শুধুই আমাদের ভালবাসা|

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

প্রেমের ৫৮টি বাণী

১) আনন্দকে ভাগ করলে দুটি জিনিস পাওয়া যায়; একটি হচ্ছে জ্ঞান এবং অপরটি হচ্ছে প্রেম। - রবীঠাকুর।


২) প্রেম চক্ষু দিয়ে দেখে না, হৃদয় দিয়ে দেখে, সেজন্য প্রেমের দেবতাকে অন্ধ বলা হয়। - চিরন্তনী বাণী।


৩) প্রেম গাছ থেকে পড়া অন্ধ তালের মতো, কার ঘাড়ে গিয়ে যে কখন পড়ে তা আগে ভাগে বুঝতে পারা যায় না। - সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়।


৪) প্রেম একটি জলন্ত সিগারেট, যার শুরুতে আগুন এবং শেষ পরিণতি ছাই।- বার্নাডস।


৫) প্রেম করার অর্থ শুধু লস, আর লস। প্রেম করা মানে টাইম লস, মানি লস, এনার্জি লস, আয়ুলস। এতো লসের পরও মানুষ কেন যে প্রেম করে বুঝি না। -আনসার উদ্দীন সরকার।


৬) ব্যর্থ প্রেমিক-প্রেমিকারা কিছুই হাতে রাখতে জানে না। এদের কপালে দুঃখ অনিবার্য। পলিটিক্সের মত মানুষের জীবন হচ্ছে অ্যাডজাষ্টমেন্ট আর কম্প্রোমাইজ। এ দারুন ইনক্লোঝনার বাজারেও সংসারে শুধু হৃদয়ের দাম খুব বেশি নয়। -যাযাবর।


৭) বড় প্রেম শুধু কাছেই টানে না; ইহা দুরেও ছুড়ে ফেলে দেয়।- শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।


৮) আমি সেই নারীকে ভালবাসি যার অতীত আছে আর সেই পুরুষকে ভাল বাসি যার ভবিষ্যত আছে। - অস্কার ওয়াইল্ড।


৯) মেয়েরা হচ্ছে বেড়ালের জাত। পুরুষের একটু অন্যমনষ্কতার কারনে তারা(মেয়েরা) তার পাত থেকে মাছ তুলে খায়। একটু খাতির না করে শাপ নিয়ে খেলা করে। প্রানে পুরুষদের না মেরে আধ-মরা করে ফেলে। - ফাল্গুনি মুখোপাধ্যায়।


১০) প্রেমের ব্যাপারে যদি কেউ জয়ী হতে চায়, তাহলে সে ক্ষেত্রে জয়ী হওয়ার একমাত্র অস্ত্র হলো পলায়ন করা। - নেপোলিয়ান।

প্রেমের গল্প

১১) ভালবাসা যা দেয়, তার চেয়ে বেশী কেড়েও নেয়। - টেলিসন।


১২) আমি চলে গেলে কেউ যদি আমার জন্য না কাদেঁ, তবে আমার অস্তিত্বের কোন মুল্য নেই। - সুইফট।


১৩) প্রেম যা পুরুষের জীবনে কেবল একটা অনুকাহিনী মাত্র, নারীর জীবনে তা সমগ্র ইতিহাস। - মাদার দ্য তায়েল।


১৪) প্রেমের সাগরে নামার আগে জেনে নেওয়া ভাল, এ সমুদ্রের কোন তীরই হয় না। - সারসার সালানী।


১৫) প্রেম একটি চমৎকার অসুখ। কষ্ট পাওয়ার, তিলে তিলে, ধুকে ধুকে মরার জন্য এমন অসুখ খুব বেশী নেই। - তপংকর চক্রবর্তী।


১৬) বিবাহিত নারীকে ভালবেসে সর্বদেশে সর্বকালে আজীবন নিঃসঙ্গ জীবন কাটিয়েছে একাধিক পুরুষ, পরের স্বামীর প্রেমে পড়ে কোনদিন কোন নারী র‌য়নি চিরকুমারী। - যাযাবর।


১৭) প্রেম মানে মুল্যবান শক্তির অবক্ষয়। - আভিধানিক অর্থ।


১৮) মেয়েরা লেখাপড়া শিখে যতই উপরে উঠুক, প্রেমের চেয়ে অলংকার উপহার বা টাকা পয়সাই তারা চেনে বেশি। - আবু জাফর।


১৯) মেয়ে মানুষ না থাকলে আমরা জীবনের প্রারম্ভে অসহায়, মধ্যভাগে নিরানন্দ এবং শেষভাগে শান্তনাহীন। - দ্য জোই।


২০) মেয়েদের না এবং হ্যা এর মধ্যে কোন তফাত নেই। - সেরভেন টিস।


২১) মেয়েদের চরিত্র এমন- যখন পুরুষেরা তাকে ভালবাসতে চায়, তখন তারা ভালবসে না আর যখন পুরুষেরা তাকে ভালবাসে না, তখন সে ভালবাসা জানাতে আসে। - সেরভেন টিস।


২২) যে নারীকে তুমি ভাল বাস, তার জন্য জীবন বিসর্জন দেয়া যত সহজ, তার সংগে ঘর করা ততো সহজ নয়। - বায়রন।


২৩) যে পুরুষ একটি নারীকে বুঝতে পারে সে পৃথিবীর যে কোন জিনিস বুঝতে পারার গৌরব করতে পারে। - জে, বি, ইয়েটন।


২৪) সব মেয়েরাই আসলে পুরুষদের ভাল লাগা, নজর কাড়া এবং অন্য মেয়েদের মনে ঈর্ষা জাগানোর জন্য সাজে। - বুদ্ধদেব গুহ।


২৫) একজন নারী চায় কোন পুরুষ তাকে একই সংগে পছন্দ করুন আর তার সংগে প্রান খুলে কথা বলুক, আবার সেই সংগে তাকে কামনা করুক আর তাকে ভালবাসুক। - ডি, এইচ, লরেন্স।


২৬) যে মেয়ে একবার তুলে দেয় শরীরের সমস্ত উপহার সে কিছুতেই ভুলতে পারে না - সেই প্রেমিক অথবা দস্যু পুরুষের মুখ। - ফ্রয়েড।


২৭) নারী চরিত্রের একটা বৈশিষ্ট্য হলো যে, তার যদি কখনও দোষ হয়, তাহলে বরং হাজার রকমের আদর দিয়ে সে দোষ স্খলনের জন্য রাজী থাকবে, তবুও দোষ স্বীকার করে কখনো মাপ চাইবে না। - ফিওদর দস্তয়ে বস্কি।


২৮) সেই পুরুষের প্রতি মেয়েদের আকর্ষন দুর্বার, যার প্রতি অন্য মেয়ে অনুকুল ( তেল মাথায় তেল দিতে চায় )। - সইফট।


২৯) একটি পুরুষ যখন হৃদয়ের সব ভালবাসা আবেগ অনুভুতি নিয়ে কেবল একটি নারীর কথা ভাবে, তখন পৃথিবীর অন্য সব নারী তার কাছে মিথ্যা হয়ে যায় smile । - ইমদাদুল হক মিলন।


৩০) যে পুরুষ কখনও দুঃখ কষ্ট ভোগ করেনি, সে পোড় খাওয়া মানুষ নয়, মেয়েদের কাছে সে বাঞ্ছনীয় হয় না। কারণ দুঃখ কষ্ট মানুষকে দরদী ও সহনশীল করে তোলে। - ডেনিস রবিনস্‌।


৩১) পুরুষেরা সর্বদাই চায় নারীর প্রথম প্রেমিক হতে। আর নারী চায় পুরুষের শেষ প্রণয়িনী হতে। - অস্কার ওয়াইল্ড।

রোমান্টিক প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেম কাহিনি, বাংলা গল্প প্রেমের কাহিনী, বাংলা প্রেমের গল্প, নতুন প্রেমের গল্প, প্রেম গল্প, bangla premer golpo

৩২) মেয়েরা তাত্বিক হয় পুরুষের সংসর্গের ঠিক আগে। পুরুষেরা তাত্বিক হয় নারী সংসর্গের পরে। - প্রবোধ কুমার সান্যাল।


৩৩) মেয়েরা পুরুষের হৃদয় এক মিনিটেই চিনে নিতে পারে, এটি বিধাতার দেয়া শক্তি এদের। অথচ আশ্চর্যের ব্যাপার- ওরা নিজেরাই নিজেদের হৃদয় চিনতে পারে না। - শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।


৩৪) ভালবাসার অর্থ হলো, যাকে তুমি ভালবাস তারমত জীবন যাপন করা। - টলস্টয়।


৩৫) জ্ঞানী ব্যক্তি ভালবাসা প্রকাশ করে কর্মে। - জর্জ ডেভিডসন।


৩৬) ভালবাসা ও প্রেম এক জিনিস নয়। একটায় মিশ্রিত থাকে স্নেহ, প্রীতি, শ্রদ্ধা ও সমীহের ভাব। অন্যটায় কেবল কামনা। ভালবাসার সাথে কামনা যুক্ত হলেই তা প্রেম। - মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ।


৩৭) ভালবাসার ক্ষেত্রে সেই সবচেয়ে জ্ঞানী, যে ভালবাসে বেশী কিন্তু প্রকাশ করে কম। - জন ডেভিডসন।


৩৮) ব্যাংকে টাকা জমানোর মনোবৃত্তি আর ভালবাসার মনোবৃত্তি কখনো এক নয়। হিসেবি বুদ্ধি নিয়ে ভালবাসতে গেলে আপনার উদ্দেশ্য ব্যর্থ হবে। ইংরেজী LOVE আর বাংলা লাভ কোন দিন এক সংগে মিলানো যায় না। লাভের খেয়াল থাকলে LOVE (ভালবাসা) ব্যর্থ হয়ে যায়। - মোতাহার হোসেন চৌধুরী।


৩৯) ভালবাসা মানে শেষ হয়ে যাওয়া কথার পরেও মুখোমুখি বসে থাকা। - রফিক আজাদ।


৪০) ভালবাসলে নারীরা হয়ে যায় নরম নদী, পুরুষেরা জলন্ত কাঠ। - পূর্নেন্দু পত্রী।


৪১) মূলতঃ ভালবাসা মিলনে মলিন হয়, বিরহে উজ্ঝ্বল। - হেলাল হাফিজ।


৪২) ভালবাসার মতো এমন ভয়ঙ্কর হৃদরোগ আর নেই। তুমি যদি সত্যি কাউকে ভালবেসে থাক নিজের অজান্তে সেও তোমার প্রতি দুর্বল হয়ে পড়বে। - মনচারী।


৪৩) আমাকে সামান্যই ভালবাস, কিন্তু তা যেন দীর্ঘ দিনের জন্য হয়। - জন হে উড়।


৪৪) পরিতৃপ্তিতে ভালবাসার মাধুর্য কমে যায়। - আব্রাহাম কওলে।


৪৫) যে যাকে যত বেশী ভালবাসে, সে তাকে ততো বড়ো আঘাত দেয়।মোঃ মনিরুজ্জামান।


৪৬) সত্যিকারের ভালবাসা মেয়েরা একজনকেই বাসে। - ইমদাদুল হক মিলন।


৪৭) প্রেম বিয়ের সূর্যোদয় এবং বিয়ে প্রেমের সূর্যাস্ত। - ফরাসী প্রবাদ।


৪৮) তুমি যদি একজন অসুন্দর মহিলাকে বিয়ে করো। তাহলে সে তোমার হবে। আর যদি একজন সুন্দরীকে বিয়ে করো, তবে তুমি তার হবে। - বিয়ন।


৪৯) প্রেমের অভাবে নয়, বরং বন্ধুত্বের অভাবেই বিয়ে অসুখের হয়। - ফ্রেডারিক নিৎস।


৫০) কাম ওপ্রেম একসংগে চলে, কোন দিন বিচ্ছেদ হয় না। - সমরেশ মজুমদার।


৫১) মনোমিলন ছারা দেহ মিলন- ওটা একেবারে অরনণ্যের আদিম অন্ধকার জীবনে উপনীত করে দিয়ে বলে- তুমি জন্তু, তুমি জন্তু। - তারাশংকর বন্দোপাধ্যায়।


৫২) প্রেমিকরা চিরকাল ফ্যা-ফ্যা করে বেড়ায়। কিন্তু লম্পটদের কখনও মেয়ের অভাব হয়না। মেয়েরা মাইরি লম্পটদের ভালবাসে। - সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়।


৫৩) বিশ্বাস হচ্ছে ভালবাসার শক্তি। - লিউটলষ্টয়।


৫৪) ভালবাসাকে বাঁচিয়ে রাখতে হলে চাই পরস্পর পরস্পরের প্রতি সশ্রদ্ধ মনোভাব। - জাজিরা মাহবুব।


প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

আরো পড়ুন:


►► জীবনে ব্যর্থতার কারণ

►► কন্টেন্ট রাইটিং করে আয়

►► মোবাইল ফোনের দাম 2022

►► অনলাইন আয়ের সাইট 2022

অনলাইনে গল্প লিখে টাকা আয়

কিভাবে ফেসবুক পেজ খুলতে হয় 

►► সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস শাখা 

সার্টিফিকেট হারিয়ে গেলে করনীয়?

স্বামী বিবেকানন্দের শিক্ষামূলক বাণী 

অনলাইনে ইনকাম করার উপায়


প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpo

প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প, রোমান্টিক প্রেমের গল্প,  প্রেম কাহিনি,  প্রেম কাহিনি, বাংলা প্রেমের গল্প Bangla Premer Golpovvv





Trick Bangla 24

স্বীকারোক্তিঃ এখানে উপস্থাপিত সকল তথ্যই দক্ষ ও অভিজ্ঞ লোক দ্বারা ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করা। যেহেতু কোন মানুষই ভুলের ঊর্দ্ধে নয় সেহেতু আমাদেরও কিছু অনিচ্ছাকৃত ভুল থাকতে পারে। সে সকল ভুলের জন্য আমরা আন্তরিকভাবে ক্ষমাপ্রার্থী। আপনার নিকট দৃশ্যমান ভুলটি আমাদেরকে নিম্নোক্ত মেইল / পেজ -এর মাধ্যমে অবহিত করার অনুরোধ জানাচ্ছি। ই-মেইলঃ trickbangla024@gmail.com

*

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন